Opu Hasnat

আজ ২১ এপ্রিল রবিবার ২০২৪,

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে : প্রধানমন্ত্রী জাতীয়

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে : প্রধানমন্ত্রী

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এজন্য পুলিশকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে। মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেনম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন।

এ সময় পুলিশের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা দেশের মানুষের সেবা করেন। দুষ্টের দমন শিষ্টের লালন, এটাই পুলিশের ধর্ম। আপনারা সেবার মাধ্যমে মানুষের আস্থা অর্জন করবেন। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় পুলিশ সদস্যরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভূমিকা রাখবে, এটাই আমাদের কাম্য।

পুলিশের জন্য নেয়া নানা পদক্ষেপ তুলে ধরে তিনি বলেন, পুলিশে এখন সবচেয়ে যুযোপযোগী, আধুনিক ও স্মার্ট। দেশের মানুষ যখনই কোনো বিপদে পড়ে সবার আগে আশ্রয় খোঁজে পুলিশের কাছে। পুলিশ জনগণের বন্ধু, এটা হয়ে আসছে এবং এটা প্রতিষ্ঠিত হওয়া দরকার। আমরা পুলিশকে মানুষের সেবায় গড়ে তুলছি।

সরকারপ্রধান আরও বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে পুলিশ বিশেষ ভূমিকা রেখেছে। করোনায় যখন আত্মীয়-স্বজন পাশে ছিল না, তখন পুলিশ মানুষের পাশে ছিল। তারা মৃত লাশ দাফন-কাফনের ব্যবস্থাও করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, রাজনৈতিক আন্দোলনের নামে অগ্নিসংযোগে বাধা দিতে যাওয়ায় পুলিশের উপরও হামলা হয়েছে। তাদের পিটিয়ে মারা হয়েছে। জনগণের জানমাল রক্ষায় পুলিশ জীবন দিয়েছে, জনগণের জানমাল রক্ষা করেছে।

গত ২৮ অক্টোবর রাজারবাগে ঢুকে জামায়াত-বিএনপি হামলা করেছে। পুলিশ ধৈর্যের সাথে এসব মোকাবিলা করেছে। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে গিয়েও আমাদের পুলিশ বাহিনী বীরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে, অনেকে জীবনও দিয়েছে। শুধু বাংলাদেশে নয়, বিশ্বে শান্তিরক্ষায় তাদের অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানাই।

পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ এর প্রতিপাদ্য- ‘স্মার্ট পুলিশ স্মার্ট দেশ, শান্তি প্রগতির বাংলাদেশ’। বার্ষিক পুলিশ প্যারেডের মধ্য দিয়ে শুরু হয় ৬ দিনব্যাপী পুলিশ সপ্তাহ।

২০২২ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে গত ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ৩৫ জন পুলিশ সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম), ৬০ জনকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম) এবং গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্য নিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য ৯৫ জন পুলিশ সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সেবা ও ২১০ জনকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম পরিয়ে দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

তার বক্তব্যে পর পুলিশের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন ও সরকারের পদস্থ কর্মকর্তাসহ মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।