Opu Hasnat

আজ ১ মার্চ শুক্রবার ২০২৪,

ভাইয়ের হাতে ভাই হত্যা মামলার মূল আসামি গ্রেপ্তার নেত্রকোনা

ভাইয়ের হাতে ভাই হত্যা মামলার মূল আসামি গ্রেপ্তার

নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলায় মামাতো ভাইয়ের হাতে মিলন মিয়া (৫০) হত্যা মামলার আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪। এ হত্যা মামলার মূল আসামি সোহেল মিয়াকে (২১) চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সোহেল মিয়া উপজেলার কাকৈরগড়া ইউনিয়নের বাউড়তলা গ্রামের রশিদের ছেলে। অপরদিকে ভুক্তভোগী মিলন মিয়া একই গ্রামের মৃত আবু হানিফ কাজীর ছেলে। 

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১৪ (সদর ব্যাটালিয়ন) এর অপারেশনস্ অফিসার ও উপপরিচালক মো. আনোয়ার হোসেন। 

তিনি জানান, ভুক্তভোগীর মিলনের সাথে তারই মামাতো ভাই আসামি রাশিদ ও রশিদের ছেলে সোহেল, মামুনের সাথে দীর্ঘদিন যাবত জমি-জমা সংক্রান্ত আদালতে মামলা মোকদ্দমা চলে আসছিল। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে চলতি মাসের দুই ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টার দিকে ভুক্তভোগী নিজেদের জমিতে কাজ ব্যস্ত ছিলেন। কিছুক্ষণ পরে এজাহারনামীয় এক নম্বর আসামি সোহেল মিয়াসহ অন্যান্য আসামিরা জমিতে এসে চাষ করা শুরু করে। ভুক্তভোগী জমি থেকে চলে যেতে বললে তাদের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে আসামিদের কাছে থাকা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে ভুক্তভোগী মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। মিলন মিয়ার আর্ত-চিৎকারে স্বজনেরা ঘটনাস্থলে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। ঘটনার পর থেকে আসামি গা ঢাকা দিয়ে পলাতক থাকেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী মোছা. সোমা খাতুন (৩২) বাদী হয়ে চারজনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে গত শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত ১টার দিকে তার নেতৃত্বে র‌্যাব-১৪ এর একটি দল ও র‌্যাব-৭ এর সহায়তায় চট্টগ্রামের রাঙ্গনিয়া এলাক অভিযান পরিচালনা করে সোহেল মিয়াকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। তাকে দুর্গাপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।