Opu Hasnat

আজ ২০ জুলাই শনিবার ২০২৪,

আমার কোম্পানি ‘Planetarium Events’ নামটাকে ছড়িয়ে দিতে চাই: নেহা প্রামাণিক বিনোদনসাক্ষাৎকার

আমার কোম্পানি ‘Planetarium Events’ নামটাকে ছড়িয়ে দিতে চাই: নেহা প্রামাণিক

ভারতের এক কোণে বেড়ে ওঠা জনপ্রিয় ইভেন্ট প্ল্যানার নেহা প্রামাণিক। সম্প্রতি তিনি মুখোমুখি হয়েছেন বাংলাদেশের পাঠকপ্রিয় ও তথ্যসমৃদ্ধ অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘টাইমটাচ নিউজ ডটকম’ এর সঙ্গে। বাংলাদেশ থেকে তার সঙ্গে কথা বলেছেন সাংবাদিক ফয়সাল হাবিব সানি। 

টাইমটাচ নিউজ: কেমন আছেন? বর্তমানে ব্যস্ততা সম্পর্কে বলুন? 

নেহা প্রামাণিক: আমি ভালো আছি ভীষণ। আর সামনে আরও ইভেন্ট করার পরিকল্পনা করছি। কিছুদিন পরই হলি ফেস্টিভ্যাল রয়েছে, সেইজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। এছাড়াও সম্পূর্ণ বছর ঘিরেই বিভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে আমার। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনি একজন ইভেন্ট প্ল্যানার এবং ইভেন্ট অর্গানাইজ করেন। কীভাবে নিজেকে একজন ইভেন্ট প্ল্যানার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করলেন? 

নেহা প্রামাণিক: আমি রোজ নতুন কিছু নিয়ে ভাবতে শুরু করি এবং বিশেষ করে আমি আমার নিজের জন্মস্থানের জন্য অনেক কিছু করতে চাই। যা সকলে টেলিভিশনের পর্দায় বা যা নিয়ে স্বপ্ন দেখে সেইটা আমি বাস্তবে রূপদান করে সকলের মাঝে আমার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চাই। মূলত, পরিশ্রমের মধ্য দিয়েই আমি একজন ইভেন্ট প্ল্যানার হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছি এবং ভবিষ্যতে এমন কিছু করে যেতে চাই যা শুধু কোচবিহার নয়, সমগ্র ভারতবাসী দেখবে। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনার কাজের পরিধি সম্বন্ধে সংক্ষেপে জানতে চাই? 

নেহা প্রামাণিক: আমি ‘Niem Kolkata’ থেকে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোর্স সম্পূর্ণ করি এবং কলকাতাতেই ফ্রিল্যান্সিং করেছি অনেক কোম্পানির পৃষ্ঠপোষকতায়। এরপর আমার নিজের পরিচয় বাড়ানোর ইচ্ছে জাগে এই ইভেন্ট ইন্ডাস্ট্রিতে। তারপর আমি আমার প্রিয় জন্মস্থান কোচবিহারকে আরও বেশি অগ্রসর করার প্রয়াসে ২০২০ সাল থেকে প্রতি বছর নিত্যনতুন ইভেন্টের আয়োজন করে যাচ্ছি। তাছাড়াও, আমার কাছে ওয়েস্ট বেঙ্গল এর অনেক জায়গা থেকেই ইভেন্ট প্ল্যানিংয়ের জন্য প্রস্তাব আসে আর তা হলো Corporate Event, Weeding Event, Festival Celebration প্রভৃতি। এসব নিয়ে প্রচণ্ড ব্যস্ততার মধ্য দিয়েই দিনাতিপাত হয় আমার। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনার পথচলায় আপনি ঈর্ষণীয় সাফল্যও পেয়েছেন৷ নিজেকে এই মুহূর্তে কতটা সফল মনে করেন? 

নেহা প্রামাণিক: এই ব্যাপারে বলতে গেলে বলতে হয়, আমি আমার জন্মস্থানকে নতুন নতুন ইভেন্টের মাধ্যমে মানুষের মানসিকতা পরিবর্তনের জন্যও প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছি। সকলে অনেক বেশি আনন্দিত হয় ইভেন্টগুলোতে। ফলশ্রুতিতে, কোচবিহারের অনেকেই আমায় এখন একটা সম্মানজনক পরিচয়ে চিনতে পেরেছে এবং অফিসার, বিধানসভা সদস্য (এমএলএ), পুলিশ থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ আমায় চেনে এবং আমার কাজে খুশি হয়ে আমাকে উৎসাহিত করে। এতে করে আমার মা-বাবা আমায় নিয়ে গর্ববোধ করে আর আমি এতে সত্যিই ভীষণ খুশি। 

টাইমটাচ নিউজ: শৈশব থেকে মূলত কী হবার স্বপ্ন নিজের মধ্যে আষ্টেপৃষ্ঠে ধারণ করতেন বা জীবনে কী হতে চাইতেন? 

নেহা প্রামাণিক: ছোটবেলা থেকে অনেক দুষ্টুমি করতাম আর সেইজন্য কোনো লক্ষ্য ছিল না আমার জীবনে। তবে ছোট ছোট কিছু আশা ছিল আর আমি সেইগুলো পূরণ করতে সমর্থ হয়েছি। যখন একাদশ শ্রেণিতে উঠলাম, তখন ভেবে নিয়েছিলাম যে, সবার জন্য আমি এমন কাজ করব যেন সকলেই আমায় একদিন এক নামে চেনে। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনি তো বোধ হয় অভিনয়ের সঙ্গেও সম্পৃক্ত। সম্প্রতি ‘Rasa Entertainment’ অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে ‘Kya Hua Hain’ শিরোনামের হিন্দি গানের মিউজিক ভিডিওতে অভিনয় করেছেন এবং প্রশংসিত হচ্ছেন। এর পূর্বেও কী অভিনয় করেছেন এবং যদি করে থাকেন, তাহলে অভিনয়েও কী অদূর ভবিষ্যতে নিজেকে স্বয়ংসম্পূর্ণরূপে মেলে ধরতে চান? 

নেহা প্রামাণিক: না, আমি অভিনয়ের সঙ্গে কখনোই যুক্ত ছিলাম না৷ এই কাজটি আমার কাছে প্রথম অভিজ্ঞতার ছিল। আর অভিনয় নিয়ে তেমন একটা চিন্তা-ভাবনা করিনি কখনো; তবে অদূর ভবিষ্যতে অভিনয়ে ভালো কাজের অফার পেলে নিশ্চয় কাজ করব আমি। 

টাইমটাচ নিউজ: কাজের বাইরেও নিজের ব্যক্তিগত জীবনটাকে কীভাবে উদযাপন করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন? 

নেহা প্রামাণিক: কাজের বাইরে নিজেকে নিয়ে নিজে ব্যস্ত থাকতে ভালোবাসি। নিজেকে সবসময় কীভাবে হাসিখুশি রাখা যায় সেইটা নিয়েই চিন্তা করি। কেননা আমি মনে করি, নিজের মন ভালো রাখতে পারলে নিজের শরীর, চেহারা সবটায় খুব ভালো থাকে অনেক বয়স্কাল অবধি। আমি টোটকা দিয়ে রূপচর্চা, জিম, ফেসবুক রিলস তৈরি করতে ভালোবাসি এবং মা-বাবার সঙ্গে ঘুরতে যাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে ঘোরাফেরা, নিজে রান্না করা, নতুন নতুন খাবার বানানা এসব করতে খুবই পছন্দ করি। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনার প্রিয় শখ কী? 

নেহা প্রামাণিক: নিজ হাতে রান্না করাটা হলো আমার শখ আর সবথেকে আমার বড়ো শখ হচ্ছে সবাইকে খুশি করা এবং সবার মুখে হাসি দেখা। আমি একজন ভালো মানুষ হবারই চেষ্টা করে যাচ্ছি প্রত্যহ প্রতিটা মুহূর্তে। 

টাইমটাচ নিউজ: আপনাকে একদিন কোন অবস্থানে দেখতে চান এবং আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয়ে অল্প কথায় জানতে চাই?

নেহা প্রামাণিক: আমি ভবিষ্যতে আরও বেশি একজন সফল মানুষরূপেই নিজেকে দেখতে চাই। আমার কোম্পানি ‘Planetarium Events’ নামটাকে বৃহৎ পরিসরে ছড়িয়ে দিতে চাই। আমার মা-বাবাকে বিলাসিতার সঙ্গেও রাখতে চাই, যাতে কোনোদিনও তাদের কোনো কষ্ট না হয়। আর মা-বাবার পরিচয়টা এমনভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই যাতে করে সকলেই বলে, মা-বাবার উপযুক্ত শিক্ষার জন্যই তাদের মেয়ে আজ এমন উচ্চ স্থানে অধিষ্ঠিত হতে পেরেছে। 

টাইমটাচ নিউজ: আমাদের সঙ্গে আপনার মূল্যবান সময় দেবার জন্য আপনায় অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন এবং আপনার স্বীয় আলোয় জীবনকে আরও বেশি আলোকিত করে তুলবেন এইটাই প্রত্যাশা করছি। 

নেহা প্রামাণিক: অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে এবং ‘টাইমটাচ নিউজ ডটকম’ এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতিই বিশেষ কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জ্ঞাপন করছি। 

ছবি: সংগৃহীত