Opu Hasnat

আজ ১ মার্চ শুক্রবার ২০২৪,

মোরেলগঞ্জে নানা সমস্যায় জর্জরিত আব্দুল আজিজ বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় বাগেরহাট

মোরেলগঞ্জে নানা সমস্যায় জর্জরিত আব্দুল আজিজ বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ পৌরসভার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত আব্দুল আজিজ মেমোরিয়াল বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি বহুমুখী  সমস্যায় ধুকছে।

স্বাধীনতা উত্তর ১৯৬৯ সালে  বিদ্যালয়টি  পানগুছি নদীর অববাহিকায় নির্মিত হয়। পানগুছি নদীর ভাঙ্গনের কারনে ১৯৮০ সালে উপজেলার আঞ্চলিক মহাসড়কের পার্শ্বে  স্থানান্তর করা হয়। ২০০৭ সালের সিডরে বিদ্যালয়টি সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। সেই থেকে বিদ্যালয়টি  নানা টানা পোড়নে  খুড়িয়ে  খুড়িয়ে চলছে। বিদ্যালয়ের টিন সেটটি ব্যবহারের সম্পূর্ণ  অনুপযোগী হয় পড়েছে। শীত, গ্রীষ্ম ও বর্ষায়  টিন সেট ঘরে ক্নাস করা সম্ভব হয়না। যার কারনে বিপাকে  পড়তে হয় কর্তৃপক্ষ ও শিক্ষাথীদের । বৃষ্টি হলেই পানি পড়ে। গরমে ক্লাস করা কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়ে। রয়েছে ভাঙ্গা - চোরা অবকাঠামো।

এছাড়াও রয়েছে আসবাবপত্রের সমস্যা। বেঞ্চের অপ্রতুলতার কারনে ৩ শতাধিক শিক্ষার্থীর ক্লাস করতে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। রয়েছে চেয়ার, টেবিলের সংকট। নেই কোন সাইন্স ল্যাবরেটরি।  নেই আইসিটি ল্যাব। ৫৫ বছরের পুরানো এ বিদ্যাপিঠটির আজো কোন দৃশ্যমান উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। বাউন্ডারি ওয়াল নেই। ক্লাস চলাকালীন বহিরাগতদের আনাগোনা। উন্মুক্ত মাঠে গবাদিপশুর বিচরণ। ক্নাসের বারান্দায় গবাদিপশুর মলমূত্র ত্যাগ করায় শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে।

১০ শ্রেণির শিক্ষার্থী নয়ন খান জানায়, আসবাবপত্র ও অবকাঠামোগত সমস্যার কারনে তাদের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। বিদ্যালয়ের নিরাপত্তার জন্য বাউন্ডারি ওয়াল জরুরী।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সাখাওয়াত হোসেন হেলান জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরে এলজিআরডি একটি ভবনের বরাদ্দ, মাপ জোক ও সয়েল টেষ্টের কাজ সম্পন্ন হলেও অনিবার্য কারনে সেই কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। যে কারনে বিদ্যায়টি অবকাঠামো সহ  নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত। শতভাগ পাশের সফলতা রয়েছে এ বিদ্যালয়ে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির  সভাপতি এ্যাড.সিদ্দিকুর রহমান জানান, বিদ্যালয়ের  নিজস্ব অর্থায়নে জরুরীভিত্তিতে কিছু কার্যক্রম পরিচালিত করা হচ্ছে।  সরকারিভাবে ভবন নির্মান একান্ত প্রয়োজন।

উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার বাকি বিল্লাহ জানান, পৌরসভার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এ বিদ্যালয়টি সুনামের সাথে পরিচালিত হচ্ছে। তবে বিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রয়োজন।

উপজেলা প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ের  ভবন নির্মানের জন্য নতুন করে টেন্ডার প্রক্রিয়াগত রযেছে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর