Opu Hasnat

আজ ২১ এপ্রিল রবিবার ২০২৪,

সুনামগঞ্জে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার

কারিগরি শিক্ষা নিলে বিশ্বজুড়ে কর্ম মিলে, থাকব ভালো, রাখব ভালো দেশ, বৈধপথে প্রবাসী আয় গড়ব বাংলাদেশ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সুনামগঞ্জে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জনশক্তি কর্মসংস্থান প্রশিক্ষণ ব্যুারো, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের আয়োজনে শহরের হালুয়ারগাঁও এলাকায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কনফারেন্স রুমে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সুনামগঞ্জ কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মো. আব্দুর রব এর সভাপতিত্বে ও প্রতিষ্ঠানের প্রধান সহকারী মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন লক্ষণশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল ওয়াদুদ,প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক সুনামগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক নিবারন চন্দ্র বিশ্বাস, সুনামগঞ্জ সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস, প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র ই›সট্রাক্টর (অটো-ডিজেল) মো. হাবিব উল্ল্যাহ, সিনিয়র ই›সট্রাক্টর (ইলেক্ট্রিক্যাল) বাপ্টু পুরকায়স্থ প্রমুখ। 

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী বলেছেন, আমরা অনেকেই বিদেশে যেতে চাই পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে। যারা বিদেশে যেতে ইচ্ছুক তাদের পারিপার্শ্বিক অবস্থানের কারণেই কিংবা সামাজিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে কিংবা পরিবারের মানুষের জীবন মানের উন্নয়নে আর্থিক অবস্থা পরিবর্তনের জন্যই বিদেশে গিয়ে চাকুরী করা। কিন্তু বিদেশে যেতে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবারের যারা কম শিক্ষিত কিংবা উচ্চ শিক্ষিত তাদেরকে বুঝে শুনে দালালদের খপ্পরে পড়তে না হয় সেইদিকে খেয়াল রেখে বৈধভাবে প্রবাসী কল্যাল মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে সঠিক ভিসা নিয়ে বিদেশে গেলে যেমন কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা থাকবে, মাস শেষে বেতনও সঠিকভাবে পাওয়া যাবে তখনই কেবল পরিবারে স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনা সম্ভব। 

তিনি বলেন, অনেকেই না বুঝে দালালদের খপ্পরে পড়ে অবৈধপথে জাহাজে কিংবা স্প্রিডবোর্ডে কিংবা তেলের ট্রামে করে বিদেশ যেতে গিয়ে ভূমধ্য সাগরে ডুবে প্রতিনিয়ত মারা যাচ্ছেন। কাজেই কাইকে দালালদের খপ্পরে না পড়ে বৈধপথে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত হয়ে বিদেশ যান নিজের জীবন যেমন নিরাপদ থাকবে তেমনি পরিবারে ও অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনা সম্ভব। এজন্য সরকার প্রবাসে ইচ্ছুক যাত্রীদের জন্য প্রশিক্ষনের পাশাপাশি বেশকিছু নীতিমালা প্রণয়ন করেছেন, সেই নীতিমালা অনুসরণ করে প্রবাসে গেলে অর্থনৈতিক সফলতা অর্জন সম্ভব বলে তিনি মনে করেন। 

তিনি আরো  বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে দেশকে বিশ্বে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছেন । এর মধ্যে প্রবাসীদের কষ্টার্জিত বিপুল পরিমানে রেমিটেন্স দেশে আসায় দেশের অর্থভান্ডারকে পরিপূর্ণ করেছেন প্রবাসীরা। তাই সরকার দেশকে উন্নতির দিকে নিয়ে যেতে মানব সম্পদকে বিভিন্ন  প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করতে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় কারিপরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। যার মাধ্যমে দেশের বিদেশগামিদের প্রশিক্ষণ নিয়ে প্রবাসে যাওয়ার ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছেন। ফলে প্রশিক্ষণ নিয়ে যারা প্রবাসে যাচ্ছেন তারা সহজেই বিদেশে গিয়ে কাজ পাচ্ছেন এবং নিয়মিত কাজ করে মাস শেষে বেতন পেয়ে অবৈধভাবে হুন্ডির মাধ্যমে নয় বৈধভাবে সরকারের প্রবাসী ব্যাংক কিংবা যেকোন ব্যাংকের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠিয়ে একদিকে যেমন প্রবাসীরা তাদের পরিবারে স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনছেন অন্যদিকে সরকারের রেমিট্রেন্স বৃদ্ধি পেয়ে দেশ দ্রুতগতিতে বিশ্বে অর্থনৈতিক ও সমৃদ্ধির দেশে পরিণত হয়েছে। তিনি প্রবাসে যেতে ইচ্ছুক উপস্থিত সকল নারীপূরুষদের ভালভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষ জনশক্তিতে রুপান্তিত হয়ে যে যার অবস্থানে থেকে নিজে অর্থনৈতিকভাবে সফলতা অর্জনের পাশাপাশি দেশকে এগিয়ে নিতে আহবান জানান। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর