Opu Hasnat

আজ ১৩ আগস্ট শনিবার ২০২২,

ব্রেকিং নিউজ

সৈয়দপুরও একদিন সিঙ্গাপুর হবে : রংপুর বিভাগীয় কমিশনার নীলফামারী

সৈয়দপুরও একদিন সিঙ্গাপুর হবে : রংপুর বিভাগীয় কমিশনার

রংপুর বিভাগের নবাগত বিভাগীয় কমিশনার মো. সাবিরুল ইসলাম বলেছেন, নীলফামারীতে উত্তরা ইপিজেড স্থাপনে ফলে এলাকার বিপুল সংখ্যক মানুষের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে।  সেখানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন বিনিয়োগ হচ্ছে।  ফলে এলাকার আত্মসামাজিক অবস্থার অনেক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। সৈয়দপুর শিল্প, বাণিজ্য  ও শিক্ষা নগরী হিসেবে খ্যাতি রয়েছে।  সৈয়দপুরে বিমানবন্দর, রেলওয়ে কারখানা, সেনানিবাস, বিসিক শিল্প নগরীর উল্লেখ করে বিভাগীয় কমিশনার বলেন সৈয়দপুর মূূলত একটি সম্ভাবনাময় উপজেলা।  আমরা সকলে স্ব স্ব অবস্থান থেকে  সম্মিলিতভাবে উদ্যোগী হলে সৈয়দপুর একদিন সিঙ্গাপুর হবে। আর সৈয়দপুর সিঙ্গাপুর হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খুশী হবেন। এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যাশাও পূরন হবে।

বিভাগীয় কমিশনার আরও বলেন, সৈয়দপুর  বিমানবন্দরের সম্প্রসারণের জন্য জমি অধিগ্রহণের জটিলতা দূর করা হবে। আর শহরে রেলওয়ের জমি নিয়ে পৌরসভা ও রেলওয়ের মধ্যে দীর্ঘদিনের পুঞ্জিভূত সমস্যাও সমাধানের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তিনি সকল কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার জন্য জেলা ও উপজেলার প্রতিটি সরকারি দপ্তরের ওয়েবপোর্টাল আপডেট থাকতে হবে।  কোন জেলা কিংবা উপজেলায় কোন দপ্তরের  কি কি উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে বা চলমান রয়েছে তা যেন সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ওয়েব পোর্টালে ঢুকে মানুষ জানতে পারেন। এটি হচ্ছেন ডিজিটাল বাংলাদেশ সুবিধা।

সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, দেশের জনগণের টাকায় আমাদের বেতন হয়, তাই আমাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব কর্তব্য যথাষথভাবে প্রতিপালন করতে হবে। 

রোববার (৩১ জুলাই) নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার সুধীজনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় একথাগুলো বলেন। বেলা ১১টায়  সৈয়দপুর উপজেলা  প্রশাসন উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে ওই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো শামীম হুসাইনের সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত  মতবিনিময় সভায় জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম উপস্থিত ছিলেন।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো ইয়াসির আরেফীন, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন, পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান, সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম আহমেদ ফারুক, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. আবু মো. আলেমুল বাসার, উপজেলা কৃষি অফিসার (ভারপ্রাপ্ত)  কৃষিবিদ মমতা সাহা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ মো. শাহাজাদা সরকার, আনোয়ার হোসেন সরকার, মনিরুজ্জামান জুন, সাংবাদিক এম আর আলম ঝন্টু প্রমুখ।

সভায় বক্তারা  শিল্প ও বাণিজ্য প্রধান সৈয়দপুর উপজেলার বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে সেসব সমাধানে বিভাগীয় কমিশনারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন। আর  রংপুর বিভাগের নবাগত বিভাগীয় কমিশনার মো. সাবিরুল ইসলাম সভার বক্তাদের সকলের বক্তব্য ধৈর্য ও মনোযোগ দিয়ে শোনেন। জবাবে তিনি সৈয়দপুর উপজেলার বিদ্যমান সমস্যাগুলো সমাধানে করণীয় তুলে ধরে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন।

মতবিনিময় সভায় রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, সুধীজন, সাংবাদিক ও  বিভিন্ন সরকারি ও উপজেলা  প্রশাসনের সকল দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রংপুর বিভাগের নবাগত বিভাগীয় কমিশনার প্রথম শ্রেণির সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

পরে তিনি সৈয়দপুর ডায়াবেটিক হাসপাতাল ও উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের লক্ষণপুর কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন করেন।  এ সময় তিনি কমিউনিটি ক্লিনিক ও ডায়াবেটিক হাসপাতালের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে সার্বিক বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। তিনি উল্লিখিত দপ্তরগুলোর পরিদর্শন বইয়ে পৃথক পৃথক মন্তব্য লিখে তাতে স্বাক্ষর করেন।