Opu Hasnat

আজ ১ ডিসেম্বর বুধবার ২০২১,

নড়াইলে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা নড়াইল

নড়াইলে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা

নড়াইলে সুবিধাবঞ্চিত ও ছিন্নমূল শিশুদের অংশগ্রহণে দু’দিনব্যাপী চিত্রাঙ্কন অনুষ্ঠান শেষ হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শহরের রূপগঞ্জ এলাকায় মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠান শেষ হয়। অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল-কেককাটা, আলোচনা, দোয়া মাহফিল, চিত্রাঙ্কন, গ্রামীণ খেলাধূলা ও পুরষ্কার বিতরণ। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় শহরের সুবিধাবঞ্চিত ও ছিন্নমূল শিশুদের রং-তুলিতে রঙিন হয়ে উঠে শেখ রাসেলের জন্মদিন। প্রতিযোগতায় অংশগ্রহণ করতে পেরে ভীষণ খুশি সুবিধাবঞ্চিত ও ছিন্নমূল শিশুরাসহ তাদের অভিভাবকেরা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন-স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মোঃ ফয়সাল মোস্তারী, নড়াইল কালেক্টরেট স্কুলের প্রধান শিক্ষক উজির আলী, নড়াইল দক্ষিণ-পূর্ব মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ইকরামুল হোসেন রিপন, ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মির্জা গালিব সতেজ, সাধারণ সম্পাদক এস এম শাহ পরান, সহ-সভাপতি আহমেদ শাকিল ও সৈয়দ মিনহাজুল ইসলাম পরাগ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার রুহান রাজ ও সোহাগ ফরাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম হোসেন ও সৌরভ হোসেন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শ্রাবণী আক্তার তনিমা, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক শেখ সাদিকুর রহমান, সদস্য মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, ইয়াসিন জমাদ্দার, রানা রায়, লিখন, পালকি, নিপা, আরিশাসহ সংগঠনের সদস্যরা।

স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মির্জা গালিব সতেজ বলেন, শেখ রাসেল আমাদের অনুপ্রেরণার নাম। দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস। তার জন্মদিনে নড়াইলে সুবিধাবঞ্চিত ও ছিন্নমূল শিশুদের অংশগ্রহণে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠান সম্পন্ন করে ভালো লাগছে।   

সংগঠনের সদস্যরা জানান, পড়ালেখার টাকা জমিয়ে এবং পারিবারিক সহযোগিতার মাধ্যমে ২০১৭ সাল থেকে কাজ করছেন তারা। মূলত সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্য কাজ করেন তারা। বর্তমানে তাদের সদস্য সংখ্যা ৪৫ জন। করোনাকালীন সময়ে অসহায় মানুষকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ, বিনামূল্যে সবজি বাজার, গরিব কৃষকের ধান কর্তন, চিকিৎসাসেবা, হাসপাতাল ও এতিমখানায় ইফতার বিতরণ, ঈদে ছিন্নমূল শিশুদের মাঝে নতুন পোশাক উপহার দেয়াসহ বিভিন্ন সহযোগিতা করেন তারা।

এছাড়া প্রায় এক বছর ধরে নড়াইলে ভাসমান বেদে সম্প্রদায়ের শিক্ষা ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি।