Opu Hasnat

আজ ২৪ অক্টোবর রবিবার ২০২১,

মাগুরায় দু’দলের সংঘর্ষে ৩০ জন আহত, ১০ বাড়ী ভাংচুর ও লুটপাট মাগুরা

মাগুরায় দু’দলের সংঘর্ষে ৩০ জন আহত, ১০ বাড়ী ভাংচুর ও লুটপাট

পূর্ব বিরোধের জের ধরে মাগুরা সদর উপজেলা বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে  আজ সকালে দুই দল গ্রামবাসির সংঘর্ষে ৩০জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ১০টি বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টম্বর) সকালে বালিয়াডাঙ্গা উওর ও পশ্চিম পাড়া এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের পান্নু মোল্ল্যাসহ অন্যরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ গ্রামের ইউনুস মোল্ল্যা ও রহমত মোল্ল্যার সমর্থকদের বিরোধ চলে আসছে। তারই সূত্র ধরে ইতিপূর্বে কয়েকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে স্থানীয় আলোকদিয়া বাজারে বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের বিল্লাল হোসেনের দোকানে গিয়ে রহমত মোল্ল্যার কয়েকজন সমর্থক তার পা কেটে নেওয়ার হুমকি দেয়।

এতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে বিল্লাল হোসনের মামাতো ভাই রানা স্থানীয় আলোদিয়া ব্রিজ উপর দু:খুু মিয়া নামের রহমত মোল্ল্যার সমর্থকে মারপিট করে। বিয়ষটি নিয়ে গ্রামে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

এক পযায়ে শুক্রবার ভোরে রহমত মোল্ল্যা ও ইউনুস মোল্ল্যার সমর্থকরা ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয় দলের ৩০জন আহত ও ১০টি বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট হয়।

আহতদের মধ্যে  তিলাব হোসেন (৬৩), বিল্লাল মোল্ল্যা (২২) পান্নু মোল্ল্যা (৩২), মামুন মিয়া (৪০), জুবায়ের (২৪), ইদ্রি মোল্ল্যা (৫০), সিরাজ (২৬) নয়ন (২২) কে  মাগুরা ২৫০ শয্যা  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার বিষয়ে মাগুরা সদর থানার ওসি মঞ্জুরুল আলম বলেন, গ্রাম্য আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের সংর্ঘষ হয়েছে। এই ঘটনায় উভয় পক্ষের ৩০ জনের অধিক লোক আহত হয়েছে। আহতদের মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে বলে জানান তিনি। দুই পক্ষের তিন জন করে মোট ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এছাড়া এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা রয়েছে। মাগুরা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।