Opu Hasnat

আজ ১৬ জুন বুধবার ২০২১,

পাইকগাছায় চোর অপবাদে কিশোরকে মারপিট করে পুলিশে সোপর্দ খুলনা

পাইকগাছায় চোর অপবাদে কিশোরকে মারপিট করে পুলিশে সোপর্দ

পাইকগাছায় বাড়ী থেকে ডেকে এনে আব্দুল্লাহ (১৬) নামে এক কিশোরকে  চোর অপবাদ দিয়ে গিরায়-গিরায় পিটিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়েছে। ঘটনাটি বুধবার সকাল ৯টায় মেসার্স সেতু ফিস নামক প্রতিষ্ঠানে। রেজাউল করিম ও তার লোকেরা মারপিট করে পুলিশে সোপর্দ করে। থানায় চুরি মামলা হলে পুলিশ আহত আব্দল্লাহকে আদালতে প্রেরণ করেছে। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় পুলিশ হাজতখানা থেকে তাকে বিকেল ৩ টায় হাসপাতালে চিকিৎসা জন্য নিয়ে যায়।

জানা যায়, পাইকগাছা পৌরসভার পুর্ব ওয়াপদা রোডে মেসার্স সেতু ফিস নামক চিংড়ী পোনা বিক্রি  প্রতিষ্ঠান অবস্থিত। যার মালিক বাতিখালীর এফাজ উদ্দিন গাজীর ছেলে রেজাউল করিম। যার পাশে হালিমা সাউন্ড ও ভাঁজার দোকান। যার মালিক আশাশুনি থানার খড়িয়াটি গ্রামের শহিদুল গাজীর ছেলে আব্দুল্লাহ (১৬)। ঐ দোকান থেকে আব্দুল্লাহকে তাড়ানোর জন্য অনেক দিন ধরে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে এ নাটক ও ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে আব্দুল্লাহর নানী ও মা জানায়। 

মামলা সুত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় ৬১ হাজার টাকা ক্যাশ বাক্সে রেখে ঘর বন্ধ করে রেজাউল করিম ও কর্মচারীরা চলে যায়। পরের দিন সকাল ৮টায় ঘর খুলে দেখে ক্যাশ বাক্স ভাঙ্গা ও ড্রয়ারের মধ্যে টাকা নেই। এসময় রেজাউল করিম তার ঘরের মধ্যে কর্মচারী হরি, পারভেজ ও অলোকেশদের দিয়ে আব্দুল্লাহকে বাড়ী থেকে সকাল ৯টায় তুলে নিয়ে আসে। সেতু ফিসের প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ফেলে লোহার রড, হাতুড়ি দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে গিরায়-গিরায় পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে তার নামে থানায় চুরি মামলা হলে তাকে আইনের প্রক্রিয়ায় আদালতে পাঠানো হয়। সোজা হয়ে দাড়াতে না পারায় ও মারাত্মক অসুস্থ হওয়ায় তাকে বিকেল ৩টায় আদালতের হাজতখানা থেকে হাসপাতালে নেয়া হয়। 

এ ব্যাপারে আব্দুল্লাহর নানী সরবানু বলেন, আমি রেজাউলের পা জড়িয়ে ধরে বলি অনেক মারধর করেছ মামলা দিওনা। সে বলে ওসি, পুলিশ আমার হাতের মুঠোয়। যা বলব তাই হবে। ওকে পেইন্ডিং মামলা দিয়ে রিমান্ড আনা হবে। কখনও জামিন পাবে না। ঘর ছাড়তে বল। 

পরিদর্শক (তদন্ত) বলেন, আসামীকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলাটি সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।