Opu Hasnat

আজ ১৩ মে বৃহস্পতিবার ২০২১,

রাত যত গভীর হয় ট্রাকের লাইন তত লম্বা হতে থাকে, অভিযানে আটক ১ ফরিদপুর

রাত যত গভীর হয় ট্রাকের লাইন তত লম্বা হতে থাকে, অভিযানে আটক ১

রাত যত গভীর হয় ট্রাকের লাইন তত লম্বা হতে থাকে ফরিদপুরের পদ্মা নদীর পাড় ঘেষা ধলার মোড়, মদনখালী ও সিএন্ডবি ঘাট এলাকার পদ্মার বুকে। একের একের পর লাইট জ্বালিয়ে এ সময় মাথা উচু করে পদ্মা নদীর গভীরে যাওয়া আসা করে ট্রাকের লম্বা বহর। নদীর বুকে তখন চলে ৮ থেকে ১০ টি ভেকু দিয়ে বালু উত্তোলনের মহোৎসব। 

সরোজমিনে গিয়ে রাত ১০টার দিকে গিয়ে দেখা যায় ভেকু গুলো একের পর এক ট্রাক ভরতে থাকছে। খালেক নামে একজন জানান, ভাই আমরা এখানে বাস করতে আর পারছিনা। যেহারে ট্রাক গুলো রাত ভরে বালু নেয় এর শব্দ ও ধুলা বালিতে বাস করাই কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। তিনি বলেন আমরা এর থেকে মুক্তি চাই। জলিল নামে একজন জানান, এলাকার প্রভাবশালী কয়েকজন ব্যক্তি এই সব কাজ করছে। তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলেনা। আমরা নিজেরাও খুব ভয় পাই। আপনারা কিছু একটা করেন ভাই। 

বাবন নামে একজন বলেন, এক একটি ভেকু রাত ভরে বালু কাটবে এর দায়িত্ব যিনি নিবেন সামলাতে তাকে ভোর রাতে ভেকু প্রতি ২৫ হাজার টাকা দেওয়ার কথা শুনেছি। সব খরচ বাদেই তিনি ওই টাকা পান বলে তিনি জানান। 

এদিকে, উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি জানার সাথে সাথে রবিবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে ওই দুই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেছে। ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার এর নির্দেশনায় ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজার সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আল আমিন। এ সময় তিনি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ঘটনাস্থলে ড্রাইভারসহ একটি ট্রাক আটক এবং ২টি ভেকু বিনষ্ট করেন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে দুস্কৃতিকারীরা এসময় পালিয়ে যায়।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজা বলেন, আমরা স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে পদ্মা নদীর ভিতরে গিয়ে অভিযান পরিচালনা করি। এ সময় ড্রাইভারসহ একটি ট্রাক আটক এবং ২টি ভেকু বিনষ্ট করা হয়। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজুর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তিনি বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এসময় ব্যাটেলিয়ান আনসারের একটি টিম উপস্থিত থেকে অভিযানে সহযোগিতা করেন। স্থানীয়রা মনে করেন এভাবে পরিকল্পনাহীনভাবে পদ্মার বুক থেকে বালু কাটার যে মহোৎসব বালু খেকোদের এগুলো অচিরেই বন্ধ হওয়া উচিত। নইলে পদ্মার তীরবর্তী এলাকায় ভাঙ্গনে দিশেহারা হতে হবে পদ্মারতীরবর্তী বাসিন্দাদের।