Opu Hasnat

আজ ১৫ জুলাই সোমবার ২০২৪,

মাদারীপুরের মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২০ মাদারীপুর

মাদারীপুরের মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২০

মাদারীপুর জেলার শিবচর ভাঙ্গা-মাওয়া-ঢাকা এক্সপ্রেসওয়েতে কুতুবপুরে ঢাকাগামী ইমাদ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ২০ জন। এ ঘটনায় কমপক্ষে আরও ১৫ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

শিবচর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু নাঈম মো. মোফাজ্জেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ১৮ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে। ঢামেকে নেওয়ার পর আরও দুজনের মৃত্যু হয়।

রোববার (১৯ মার্চ) সকালে উপজেলার কুতুবপুর এলাকায় ঢাকাগামী ইমাদ পরিবহনের একটি বাস পড়ে খাদে এ দুর্ঘটনা ঘটে।শিবচর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু নাঈম মো. মোফাজ্জেল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে, রোববার সকালে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ইমাদ পরিবহনের একটি বাস মাদারীপুরের শিবচরের উপজেলার পদ্মাসেতুর আগে এক্সপ্রেসওয়ের কুতুবপুরের সিমানা এলাকায় আসলে বাসটির সামনের একটি চাকা ফেটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রেলিং ভেঙে বাসটি রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়।

এসময় দুমড়েমুচড়ে যায় বাসটি। সকাল সোয়া আটটা পর্যন্ত দুর্ঘটনাকবলিত বাসের ভেতর থেকে ১৪ জন যাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও দুজনের মৃত্যু হয় বলে জানা যায়।

এ দুর্ঘটনায় অন্তত ১৫ জনকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে আহতদের শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। উপজেলা প্রশাসন, হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাশ উদ্ধার করেছে। হাসপাতালে নেয়ার পর আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মাদারীপুর পুলিশ সুপার মো: মাসুদ আলম বলেন, এ দুর্ঘটনায় ২০ জন নিহত হয়েছে। বাসটি খুলনা থেকে ছেড়ে আসে। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এইক সঙ্গে নিহত ব্যক্তিদের সৎকারের জন্য ২০ হাজার টাকা ও আহতদের ৫ হাজার  দেওয়ার ঘোষনা দেয়া হয়েছে। 

দুর্ঘটনা নিহতের মধ্যে যাদের পরিচয় শনাক্ত করা গেছে তারা হলেন- গোপালগঞ্জের ত্রিনদী রঞ্জন মন্ডল (৫০), গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরের মো. আমজাদ আলীর ছেলে মাসুদ মিয়া (৩২), খুলনার সোনাডাঙ্গার শেখ আহমদ মিয়ার ছেলে শেখ আব্দুল আল মামুন (৪০), গোপালগঞ্জ সদরের মো. হেদায়েত মিয়া (৪৫), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত (ইংরেজি) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী গোপালগঞ্জ সদরের মাসুদ মিয়ার মেয়ে সুইটি আক্তার (২০), লোহাগাড়া নড়াইলের বকু শিকদারের ছেলে ফরহাদ হোসেন (৫০), গোপালগঞ্জ সদরের মাসুম মিয়ার পুত্র মোস্তাক শেখ (৪০), টুংগীপাড়া গোপালগঞ্জের মো. কাঞ্চন শেখের ছেলে শেখ কবির হোসেন (৫৫), ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় মাস্টার্সে অধ্যয়নরত গোপালগঞ্জ সদরের আবু হেনা মোস্তফার মেয়ে আফসানা মিমি (২৪), সজীব (২৬) পিতা- নওশাদ শেখ গোপালগঞ্জ, এবং মোহাম্মদ ইসমাইল পিতা শহীদ মুরাদ আলি, আলফাডাঙ্গা, ফরিদপুর। বাকিদের পরিচয় এখনো শনাক্ত করা যায়নি।