Opu Hasnat

আজ ২৭ মার্চ সোমবার ২০২৩,

কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি পদে আ.লীগের বিজয় কুমিল্লা

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি পদে আ.লীগের বিজয়

এবারের কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি পদে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ প্যানেলের প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। বিএনপি ও জামায়াত-সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল থেকে সহ-সাধারণ সম্পাদক, তথ্যপ্রযুক্তি ও আপ্যায়ন সম্পাদকসহ তিনটি পদে জয়ী হয়েছেন। 

শুক্রবার সকাল ৯টায় এ ফল ঘোষণা করা হয়। আগেরদিন বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ভোটারসংখ্যা ১ হাজার ২২১ জন।

সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের প্যানেল থেকে বিজয়ীরা হলেন সভাপতি পদে মো. আহসানউল্লাহ খন্দকার, সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান ও শাহ আলম মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আবু তাহের, কোষাধ্যক্ষ নবেন্দু বিকাশ সর্বাধিকারী দোলন, লাইব্রেরি সম্পাদক সঞ্জয় কুমার সরকার, এনরোলমেন্ট সম্পাদক সৈয়দ শহীদুল আহসান, কার্যকরী সদস্য রাশেদা বেগম, জলিল আহমেদ, শাহাদাত হোসেন, সুলতানা সালেহা চৌধুরী ও মো. খোরশেদ আলম।

জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল থেকে সহসাধারণ সম্পাদক পদে জামায়াতের ইয়াকুব আলী চৌধুরী, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান ভূঁইয়া ও আপ্যায়ন সম্পাদক পদে কাজী আবদুল কাইয়ুম নির্বাচিত হয়েছেন।

২০২২ সালে সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় প্যানেল থেকে ১৫টি পদের মধ্যে ১২টি পদে জয়ী হয়েছে। গতবারের মতো এবারও সভাপতি পদে আহসানউল্লাহ খন্দকার ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আবু তাহের আবারও নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকায় টানা দুই বছর প্রত্যাশিত ফল হয়েছে। অন্যদিকে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব থাকায় তাঁরা টানা দুইবার পরাজিত হয়েছেন। গত বছর সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের প্রার্থী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১১টি পদে জয়ী হন। ২০২১ সালে বিএনপিপন্থীরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি পদে জয়ী হয়েছিলেন।

কুমিল্লার জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি মো. কাইমুল হক বলেন, জাতীয়তাবাদী ফোরাম প্রত্যাশার চেয়ে কম ভোট পেয়েছে।

কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ নুরুর রহমান বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ একাট্টা হওয়ায় এমন ফল হয়েছে।