Opu Hasnat

আজ ১০ ডিসেম্বর শনিবার ২০২২,

কুমিল্লায় বাজুসের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কুমিল্লা

কুমিল্লায় বাজুসের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

কুমিল্লায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কুমিল্লা ক্লাবে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর বাজুসের প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বদলে গেছে দেশের জুয়েলারি শিল্প। তিনি দেশের জুয়েলারি শিল্পকে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে পৌঁছে দিতে চান। তাই দেশের প্রতিটি জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানকে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে ব্যবসা পরিচালনা করতে হবে।

কেউ অনিয়ম করে এই শিল্পের সুনাম নষ্ট করলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। সায়েম সোবহান আনভীরকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে পেয়ে বাজুস সদস্যরা গর্বিত।  

বাজুসের কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি শাহ মো. আলমগীর খান এ মতবিনিময় সভার সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বাজুসের সহ-সভাপতি ও বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিংয়ের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন।  

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বাজুসের সহ-সম্পাদক ও বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিংয়ের সদস্য সচিব মো. জয়নাল আবেদীন খোকন, কার্যনির্বাহী সদস্য উত্তম ঘোষ, সদস্য প্রণব সাহা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাজুস কুমিল্লার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুজ্জামান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের পক্ষে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করেন অনুষ্ঠানের অতিথি ও বাজুসের কেন্দ্রীয় নেতারা।

অনুষ্ঠানে বক্তারা আরও বলেন, আজকের এ আয়োজন ব্যতিক্রমী। এ ধরনের আয়োজন ব্যবসায়ীদের জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে। বাজুসের নির্ধারিত দামের বাইরে কেউ স্বর্ণ বিক্রি করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আবার খাঁটি সোনা কিনে কম দামে বিক্রি করলেও ধরে নিতে হবে এতে সমস্যা আছে। যারা গুণগত মান নিশ্চিত করেন না এবং গ্রাহককে ঠকান, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমাদের প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের উদ্দেশ্য, দেশের জুয়েলারি শিল্পকে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে পৌঁছানো। সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। আমরা দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে বদ্ধপরিকর।

এসময় আরও বক্তব্য দেন- বাজুস বরুড়া উপজেলার সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, মুরাদনগরের সভাপতি স্বপন পোদ্দার, লাকসামের সভাপতি সুভাষ ভৌমিক, চান্দিনার সভাপতি শাহ মো. আলমগীরসহ কুমিল্লা মহানগর ও অন্যান্য উপজেলার নেতারা।