Opu Hasnat

আজ ২৮ নভেম্বর সোমবার ২০২২,

মানিকছড়িতে পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণচেষ্টাকারীকে গ্রেফতারের দাবিতে রামগড়ে বিক্ষোভ খাগড়াছড়ি

মানিকছড়িতে পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণচেষ্টাকারীকে গ্রেফতারের দাবিতে রামগড়ে বিক্ষোভ

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় মানিকছড়িতে পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা ও হামলা করে জখম করার ঘটনায় জড়িত মো: নূর হোসেনকে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে রামগড়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ, রামগড় উপজেলা শাখা। সোমবার (১১ জুলাই ২০২২) সকাল ৯টায় রামগড় উপজেলা সদর এলাকায় এই বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইউপিডিএফ রামগড় ইউনিটের সমন্ধয়ক হ্লাচিং মারসা, পিসিপি'র রামগড় উপজেলা সভাপতি নয়ন চাকমা, নারি সংঘের সদস্য গুলোমনী চাকমা ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রামগড় উপজেলার সাধারণ সম্পাদক কিরণ ত্রিপুরা প্রমুখ।

বক্তারা মানিকছড়িতে পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা ও হামলা করে লাঠির আঘাতে মারাত্মক জখম করার ঘটনায় জড়িত মো: নূর হোসেনকে পুলিশ এখনো গ্রেফতার না করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

তারা বলেন, প্রশাসনের উদাসীনতা কারণে অপরাধী দুর্বৃত্তরা বার বার নারী ধর্ষণ- নির্যাতনের মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা সংঘটিত করতে সাহস পাচ্ছে। যার কারণে পাহাড়ি নারীদের কোথাও আজ নিরাপত্তা নেই। 

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে মো: নূর হোসেনকে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং পাহাড়ে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

এইচডব্লিউএফ : হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ)-এর সভাপতি নীতি চাকমা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সভাপতি কণিকা দেওয়ান রোববার (১০ জুলাই ২০২২) এক যুক্ত বিবৃতিতে খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে মো: নূর হোসেন (২২) নামে এক সেটলার বাঙালি দুর্বৃত্ত কর্তৃক দুই সন্তানের জননী এক পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণের প্রচেষ্টা ও হামলা করে গুরুতর জখম করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেত্রীদ্বয় এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার অংশ হচ্ছে নারী ধর্ষণ। পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রতিনিয়ত ধর্ষণের স্টিমরোলার জারি রাখা হয়েছে। মানিকছড়ির ঘটনাটিও তার ব্যতিক্রম নয়। নারীরা ঘরে বাইরে কোথাও নিরাপদে নেই।

বিবৃতিতে প্রশাসনের নির্বিকার ভূমিকা ও বিচারব্যবস্থার দুর্বলতার কথা তুলে ধরে নেত্রীদ্বয় পার্বত্য চট্টগ্রামে এসকল ঘটনা অহরহ ঘটার কারণ হিসেবে সেনাশাসনের ভয়ানক ফলাফল ও একইসাথে প্রশাসনের নির্বিকার অবস্থানকে দায়ী করেন। তারা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সাজেকে নারী ধর্ষণ, রামগড় শিক্ষক কর্তৃক ধর্ষণের প্রচেষ্টা, খাগড়াছড়িতে গণধর্ষণ ও সর্বশেষ ভাইবোনছড়া ইউনিয়নে দেওয়ান পাড়ায় সেনা মদদপুষ্ট মুখোশবাহিনী সদস্য কর্তৃক মারধরের পর গণধর্ষণের ঘটনায় প্রশাসনের কোনো ভূমিকা পরিলক্ষিত হয়নি। উল্টো এই দুর্বৃত্তদের প্রশাসনের নাকের ডগায় বিচরণ করতে দেখা যায়। বাংলাদেশে বিচার ব্যবস্থায় বিচারহীনতার সংস্কৃতি চর্চার ফলে দুর্বৃত্তরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায় না। এতে করে পাহাড়ে নারীদের নিরাপত্তা আরো বেশি হুমকির সম্মুখীন হয়েছে।

বিবৃতিতে নেত্রীদ্বয় অবিলম্বে মানিকছড়িতে নারীকে ধর্ষণ প্রচেষ্টা ও জখম করার ঘটনায় জড়িত মো: নূর হোসেনকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং আহত নারীর সুকিচিৎসা নিশ্চিত করা এবং পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে নারীদের নিরাপত্তার জোর দাবি জানান। একই সাথে তারা এযাবতকালে সংঘটিত সকল ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ধর্ষক ও দুর্বৃত্তদের বিচারের আওতায় এনে গ্রেফতারপুর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানেরও দাবি জানিয়েছেন।

রামগড়ে বিক্ষোভ: খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার যোগ্যছলা ইউনিয়নের আচালং পাড়ায় গতকাল সেটলার মো: নূর হোসেন কর্তৃক এক পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা ও হামলা করে জখম করার প্রতিবাদে রামগড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১০ জুলাই ২০২২) দুপুর ১টায় রামগড় উপজেলা সদর এলাকায় এই বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইউপিডিএফ রামগড় ইউনিটের সদস্য রাম ত্রিপুরা, পিসিপি রামগড় উপজেলা সভাপতি নয়ন চাকমা ও সদস্য পরনা ত্রিপুরা এবং গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রামগড় উপজেলার সভাপতি  জার্মেন্ট ত্রিপুরা প্রমুখ।

বক্তারা সেটলার মো; নূর হোসেন কর্তৃক পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা ও হামলা চালিয়ে লাঠির আঘাতে গুরুতর জখম করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি নারীদের ওপর ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটেই চলছে। সেটলার বাঙালিদের কারণে পাহাড়ি নারীরা আজ ঘরে বাইরে কোথাও নিরাপদ নয়। কিন্তু প্রশাসনের উদাসীনতার কারণে অপরাধী দুর্বৃত্তরা বার বার পার পেয়ে যায়। ফলে তারা এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা সংঘটিত করতে সাহস পাচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে নূর হোসেনকে গ্রেফতারপূর্ব দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং পাহাড়ে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, শনিবার  দুপুরে খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার যোগ্যছোলা ইউনিয়নের আচালং পাড়া এলাকায় মো: নূর হোসেন (২২) নামে এক সেটলার বাঙালি দুর্বৃত্ত দুই সন্তানের জননী এক পাহাড়ি নারীকে ধর্ষণ প্রচেষ্টা চালায়। কিন্তু এতে ব্যর্থ হয়ে সে লাঠি দিয়ে আঘাত করে ওই নারীকে গুরুতর জখম করে। আহত নারী বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনার ২৪ঘন্টা অতিক্রান্ত হলেও অভিযুক্ত নূর হোসেনকে পুলিশ এখনো গ্রেফতার করেনি।