Opu Hasnat

আজ ২৮ জানুয়ারী শুক্রবার ২০২২,

নৌকায় ভোট দেয়ায় প্রাণনাশের হুমকি, থানায় অভিযোগ দায়ের সুনামগঞ্জ

নৌকায় ভোট দেয়ায় প্রাণনাশের হুমকি, থানায় অভিযোগ দায়ের

গত ২৮ নভেম্বর সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেয়ার কারণে মৌখলা গ্রামের নিরীহ ধনঞ্জয় ও তার স্বজনসহ পরিবারের সদস্যদের প্রকাশ্যে প্রাননাশের হুমকি দিয়েছে প্রতিপক্ষ এক বিএনপি চেয়ারম্যান (স্বতন্ত্র) প্রার্থীর সমর্থক ননি গোপাল দেবনাথ গংরা। 

এ ঘটনায় ২৯ নভেম্বর নিরীহ ধনঞ্জয়ের স্বজন জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার মজমদারী গ্রামের হরেন্দ্র দেবনাথের ছেলে রতন দেবনাথ বিকেলে নিজে বাদি হয়ে মৌখলা গ্রামের গগন দেবনাথের ছেলে হুমকিদাতা ননি গোপাল দেবনাথ, নরেন্দ্র দেবনাথ, মন্টু দেবনাথ, মহেন্দ্র দেবনাথের ন্ত্রী আশু দেবী নাথ, ছেলে মনেন্দ্র দেবনাথকে অভিযুক্ত করে শান্তিগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হুমকিদাতাগণ টাকার বিনিময়ে পরাজিত এক বিএনপির চেয়ারম্যান (স্বতন্ত্র) প্রার্থীর সমর্থক ননি গোপাল গংরা প্রকাশ্য ধনঞ্জয় দেবনাথের পরিবারের সদস্যসহ তার স্বজন বিশ্বম্ভরপুর থানার মজমদারী গ্রামের রতন দেবনাথকে প্রাননাশের হুমকি প্রদান করেন বলে উল্লেখ করা হয়। ননি গোপালের হুমকির পেছনে নেপথ্য কাদের ইন্দন রয়েছে কারা সেই ইন্দনদাতাদের খুঁজে বের করতে পারলেই হুমকির আসল রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে। ফলে তারা জানমালের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় নিয়ে থানায় এ অভিযোগটি দায়ের করেন। এছাড়াও ঐ চেয়ারম্যান প্রার্থীর এক শক্তিশালী সমর্থক মোবাইল ফোনে মৌখলা গ্রামের আরো বেশ কিছু হিন্দু সম্প্রদায়ের নৌকার সমর্থকদের রাস্তাঘাটে পাইলে দেখে নেওয়ার ও হুমকি দেন বলে জানা যায়। 

এদিকে, পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পদপদবী ব্যবহারকারী বেশ কিছু নেতা প্রকাশ্য বিএনপির দু’জন (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের বিভিন্নভাবে প্রলোভন লোভ লালসা দেখিয়ে তাদের প্রভাবিত করে ভোট সংগ্রহ করেন বলেও নানান অভিযোগ রয়েছে। মৌখলা গ্রামের বিএনপির এক পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থক জগন্নাথপুর উপজেলায় পোষ্ট অফিসে রানার পদে কর্মরত হুমকিদাতা মন্টু দেবনাথ অবৈধভাবে টাকা কামিয়ে গত চারবছরে তার নিজ মৌখলা গ্রামে বোরো রকম ৩০ কেদার জমি বন্ধক এবং খরিদ করেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মৌখলা গ্রামের অনেকেই প্রতিবেদককে জানান। 

এ ব্যাপারে হুমকিদাতা মৌখলা গ্রামের ননী গোপাল দেবনাথের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি হুমকির বিষয়টি অস্বীকার করে ফোনের লাইনটি কেটে দেন। 

এ ব্যাপারে অভিযোগকারী রতন দেবনাথ জানান, আমি অন্য থানার লোক হলেও নির্বাচনকালীন সময়ে আমার স্বজন মৌখলা গ্রামের ধনঞ্জয় দেবনাথের বাড়িতে অবস্থান করায় বিএনপির একজন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কিছু সমর্থকরা আমিসহ আমার স্বজনদের মোবাইল ফোনসহ বিভিন্নভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান।

এ ব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা শান্তিগঞ্জ থানার এ এস আই মো. আব্দুল ওয়াদুদ ঘটনাস্থলে অবস্থান করলেও তিনি ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন তবে উভয়পক্ষ মিলে আজ সন্ধ্যায় মিমাংসার উদ্যোগ নিবেন বলে উভয়পক্ষ তাকে জানিয়েছে। বিষয়টি মিমাংসা না হলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ও তিনি জানান।

 এ ব্যাপারে শান্তিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ কাজি মোক্তাদির হোসেন চৌধুরী অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে তদন্তে আছে। তবে তদন্তে প্রমানিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভোটারগন তাদের পছন্দের যেকোন প্রার্থীকে ভোট দেয়ার অধিকার রয়েছে। এতে কোন প্রার্থী কিংবা তার সমর্থকেরা কোন ভোটারকে ভয়ভীতিসহ হুমকি দেয়ার কোন অধিকার নেই।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর