Opu Hasnat

আজ ১৮ সেপ্টেম্বর শনিবার ২০২১,

ব্রেকিং নিউজ

দামুড়হুদায় কঠোর লকডাউন মানছে না সাধারণ মানুষ চুয়াডাঙ্গা

দামুড়হুদায় কঠোর লকডাউন মানছে না সাধারণ মানুষ

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় প্রশাসনের কঠোর তদারকির পরও সাধারন মানুষ মানাছে না সরকাররী বিধি নিষেধ। দোকানপাট, কাঁচাবাজারে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বালায় নেই। কাঁচাবাজারে মানুষের ভিড় চোখে পড়ার মতো। কঠোর লকডাউনের চতুর্থ দিনে সোমবার মহাসড়ক  গুলোতে যানবাহন চলাচল কম থাকলেও আঞ্চলিক সড়ক গুলো ছোট খাটো যানবাহন ইজিবাইক, রিক্সা, ভ্যান চলাচল করছে স্বাভাবিক ভাবে। উপজেলা সদরসহ কার্পাসডাঙ্গা, কুড়ুলগাছি, জগোনাথপুর বাজারসহ আশেপাশের মোড়ের দোকানপাটগুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভিড় ছিল। সেখানে সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই। অধিকাংশ মানুষের মুখে ছিল না মাস্ক। মুখে মাস্ক নেই কেন জানতে চাইলে দু-একজন বলেন, মাস্ক পকেটে আছে। বেশি ভিড় দেখলেই পড়বেন।

বাজারের অধিকাংশ দোকানের এক সার্টার খুলে  সামনে পাহারা বসিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রশাসনের গাড়ি দেখলেই সার্টার নামিয়ে দিচ্ছে। চলে গেলে আবার খুলে দেওয়া হচ্ছে।

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত লকডাউন চলছে বলে মনেই হচ্ছে না। উপজেলার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে যানবাহন থামিয়ে তল্লাশি করছে পুলিশ। কিন্তু তার পরেও বিনা কারনে অনেক মানুষ বাহিরে ঘুরাফেরা করছে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে ও লকডাউন কার্যকর করতে সেনাবাহিনী, বিজিবি পুলিশ নিয়মিত টহল দিচ্ছে সকলকে সর্তক করে দিচ্ছে। বিধি নিষেধ না মানায় কয়েক জন ব্যাবসায়ী দোকান খুলে ব্যবসা করায় প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চাবি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন নির্বাহী ম্যাজিট্রেট উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহসহ দুই জন জেলা ম্যাজিট্রেট।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ বলেন, করোনা সংক্রমণের এ হার উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। কঠোরভাবে লকডাউন কার্যকর করা না গেলে সংক্রমণের হার কমবে না। মহামারির এ দুঃসময়ে উপজেলাবাসীর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর