Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ২০২১,

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের বড় জয় খেলাধুলা

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের বড় জয়

লিটন দাসের সেঞ্চুরিসে বিশাল সংগ্রহ পাওয়ার পর বল হাতে সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণিঝড়ে জিম্বাবুয়েকে বিশাল ব্যবধানে হারালো বাংলাদেশ।
 
শুক্রবার হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৭৬ রানের পুঁজি পেয়েছে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের বোলারদের দাপটে ১২১ রানে গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ের ইনিংস। বিশেষ করে সাকিব আল হাসান ধস নামান জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপ। সাকিব একাই নেন ৩০ রানে ৫ উইকেট।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভালো শুরু পায়নি জিম্বাবুয়ে। তারা দলীয় ৪ রানেই অভিষিক্ত তাদিওয়ানাসে মারুমানির উইকেট হারায়। তিনি কোনো রান না করেই মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বলে বোল্ড হন। এরপর তাসকিন আহমেদ বোল্ড করে ফেরান ৯ রান করা ওয়েসলি মাধেভেরেকে।

দ্রুত ২ উইকেট হারানোর পর জিম্বাবুয়ের রান বাড়াচ্ছিলেন অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেলর ও ডিওন মেয়ার্স। ১৮ রান করা মেয়ার্সকে নিজের প্রথম শিকার বানান টাইগার পেসার শরিফুল ইসলাম। মেয়ার্স উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ ব্যাকওয়ার্ডে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন।

জিম্বাবুয়ের 'বিগ ফিশ' টেলরকে নিজের শিকার বানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। আউট সাইড অফের বল ফাইন লেগে মারতে গিয়ে তাসকিনকে ক্যাচ দিয়েছেন জিম্বাবুয়ের এই অধিনায়ক। ২৪ রান করা টেলরের উইকেট নিয়েই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক হন সাকিব। এর আগে এই তালিকায় শীর্ষে ছিলেন সাকিব।

টেলর সাজঘরে ফেরার পর দ্রুতই আরও ৩ উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে। ৬ রান করা রায়ান বার্লকে নিজের দ্বিতীয় শিকার বানিয়েছেন সাকিব। এই বাঁহাতি স্পিনারের বলে স্লগ সুইপ করেছিলেন বার্ল তবে ব্যাটে ঠিকঠাক না লেগে তা ধরা পড়ে ডিপ মিড উইকেটে আফিফের হাতে।

এরপর কোনো রান করেই লুক জাঙ্গো রান আউট হয়েছেন। আর ২ রান করা মুজারাবানিকে এলবিডব্লিউ করে ফিরিয়েছেন সাকিব। আর তাতেই হারের প্রহর গুনছে দলটি।
 
রিচার্ড এনগারাভাকে ফিরিয়ে ৫ উইকেটের দেখা পেয়েছেন সাকিব। এর আগের ওভারেই হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়া রেজিগ চাকাভাকে ব্যক্তিগত ৫৪ রানে ডিপ মিড উইকেটে মিরাজের ক্যাচ বানিয়েছিলেন সাকিব।

বাংলাদেশ : ২৭৬/৯ (৫০ ওভার) (লিটন ১০২, মাহমুদউল্লাহ ৩৩, সাকিব ১৯, তামিম ০, মিঠুন ১৯, মোসাদ্দেক ৫, আফিফ ৪৫, মিরাজ ২৬; মুজারাবানি ২/৪৭, এনগারাভা ২/৬১, জাঙ্গো ৩/৫১)

জিম্বাবুয়ে :  ১২১/১০ (২৮.৫ ওভার) (চাকাভা ৫৪, টেলর ২৪, মেয়ার্স ১৮, মাধেভেরে ৯, মারুমামি ০)