Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ২০২১,

কেরু এন্ড কোং এর হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যাপক চাহিদা, বাজারে মিলছে না চুয়াডাঙ্গা

কেরু এন্ড কোং এর হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যাপক চাহিদা, বাজারে মিলছে না

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় ব্যাপক হরে করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় চাহিদা বেড়েছে দর্শনা কেরু এন্ড কোং এর উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজারের। বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির হ্যান্ড স্যানিটাইজার পাওয়া গেলেও সংকট দেখা দিয়েছে দর্শনা কেরু এন্ড কোং এর উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার। কোম্পানির প্রচুর পরিমান মজুদ থাকা সত্বেও বাজারে মিলছে না এই স্যানিটাইজার।

দর্শনা কেরু এন্ড কোং এর এম ডি আবু সাঈদ বলেন, নিয়মিত স্যানিটাইজার উৎপাদন করা হয় না। বিশেষ সময় উৎপাদন করে তা মজুদ করে রাখা হয়। সেটা শেষ  হলে আবারো উৎপাদন করা হয়। বতমার্নে তাদের প্রচুর পরিমান মজুদ আছে কিন্তু বিক্রি খুবই কম।গত বছর করোনা শুরু হলে কেরু এন্ড কোং করোনা থেকে সুরক্ষার জন্য উৎপাদন শুরু করে। যার মান যেমন ভালো তেমনি দাম ও মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকায় ব্যাপক বিক্রি হয়েছে।

কেরুর প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো, সাহাবদ্দীন বলেন, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন কোম্পানি স্যানিটাইজার উৎপাদন করছে। তারা নিয়মিত বাজারে বাজারে পৌছে দিয়ে আসছে। কিন্তু কেরু এন্ড কোং এর স্যানিটাইজার শুধু মাত্র তাদের সেলসেন্টার থেকে বিক্রয় করা হয়ে থাকে। তাদের মার্কেটে পৌছে দেওয়ার মত কোন সুযোগ না থাকায় তাদের বিক্রি কুমে গেছে। বর্তমানে কেরু ও তাদের ঢাকা অফিসসহ বিভিন্ন সেল সেন্টার প্রচুর স্যানিটাইজার মজুদ রয়েছে। কিন্তু ক্রেতার সংখা খুবই কম।

তিনি আরো বলেন কেরুর উৎপাদিত ১০০ মিলি বোতলের বিক্রয় মূল্য মাত্র ৬০ টাকা যা অন্যান্য সব কোম্পানির তুলনায় কম। কেরু এ্যান্ড কোং গত বছর মার্চ থেকে জুন মাস পর্যন্ত প্রায় ১.২ কোটি টাকা মুনাফা অর্জনে সক্ষম হয় শুধুমাত্র স্যানিটাইজার বিক্রয়ের মাধ্যমে। তবে ঐ সময়ের উৎপাদিত মাল মজুদ থাকায়  বর্তমানে উৎপাদন বন্ধ বন্ধ রাখা হয়েছে।

দামুড়হুদা বাজারের ভাই ভাই ফার্মেসির সত্বাধীকারী মোঃ মিঠু বলেন, কেরুর স্যানিটাইজালর মান ভালো দামও কম বাজারে ব্যাপক চাহিদাও রয়েছে। কিন্তু এই মাল ক্রয়ের অনেক জটিলতা রয়েছে। তাদের বিক্রয় কেন্দ্রে গিয়ে ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার পরে মাল পাওয়া যায়। অন্যান্য বিভিন্ন কোস্পানির স্যানিটাইজার তারা ঘরে বসে অর্ডার করলেই তারা পৌঁছে দিচ্ছে ফলে কোন ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে না।