Opu Hasnat

আজ ৫ মার্চ শুক্রবার ২০২১,

চুয়াডাঙ্গায় কোনো পরিবার গৃহহীন থাকবেনা : এমপি ছেলুন চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গায় কোনো পরিবার গৃহহীন থাকবেনা : এমপি ছেলুন

চুয়াডাঙ্গা ০১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়াদ্দার ছেলুন বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে পর্যাক্রমে গৃহ নিমার্ণ করে দিচ্ছে সরকার। দেশে আর কোনো পরিবার গৃহহীন থাকবে না।

শুক্রবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় হাতিকাটা আবাসনে মুজিব শত বার্ষিকী উপলক্ষে ভুমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর নির্মান কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনকালে একথা বলেন তিনি ।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান আমাদের শুধু স্বাধীনতা দেননি, দেশের জনসাধারনের জন্য সুখি-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার কাজ শুরু করেছিলেন। কিন্তু ৭১ সালের পরাজিত শক্তি বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে ৭৫ এর কালো রাতে হত্যা করে। তিনি এ সময়  ৪ জাতীয় নেতা ও ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণ করেন।

তিনি আরও বলেন, পাকিস্তান শাসনামলে ২৪ বছরের মধ্যে সাড়ে ১৩ বছর জেল খেটেছেন বঙ্গবন্ধু। তিনি বেঁচে থাকলে অনেক আগেই এ দেশ উন্নত দেশে পরিনত হতো। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে কার্যকর  পরিকল্পনা প্রনয়ন করে যাচ্ছেন তাঁর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা । 

শেখ হাসিনা সারা দেশের ন্যায় পর্যায়ক্রমে চুয়াডাঙ্গায় ১ হাজার ১৩১ পরিবারকে ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসিত করার কার্যক্রম শুরু করেছেন । তার মধ্যে ১৩৪টি  ঘর ২০ জানুয়ারীর মধ্যে ভুমিহীন ও গৃহহীন দের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে । মাথাপিছু ঘর প্রতি ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা  খরচ করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন।  এতে ১৩৪টি ঘরে খরচ পড়ছে ২২ কোটি ৯১ লাখ ৪ হাজার টাকা। এর মধ্যে সদর উপজেলঅয় ৩৪ টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৫০টি, দামুড়হুদা উপজেলায় ৩২ টি ও জীবননগর উপজেলায় ১৮ টি  ঘর রয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, মুজিব শত বার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন দেশে কোনো ভুমিহীন ও গৃহহীন কেউ থাকবে না। এ উপলক্ষে প্রাথমিকভাবে আমরা ১ হাজার ১৩১ জনের বাছাই করেছি। তার মধ্যে ১৩৪ভুমিহীন ওগৃহহীন পরিবারের  মধ্যে  ২০ জানুয়ারী মধ্যে ঘর হস্তান্তর হবে । বাকীরা পর্যায়ক্রমে ঘর ও জমি পাবেন। 

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা সদর নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা  পৌরসবার নবনির্বাচিত মেয়র জাহাঙ্গীর আলম খোকন, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গরীব রুহানী মাসুম,  আলুকদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইসলাম উদ্দীন, সহকারী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম, পৌর ভুমি কর্মকর্তা আতিকুল হক ও  আলুকয়িা  ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাবলুর রহমান।