Opu Hasnat

আজ ১৮ জানুয়ারী সোমবার ২০২১,

সিংগাইরে পুলিশী বাঁধায় শরিয়ত বয়াতির পালা গানের অনুষ্ঠান বন্ধ মানিকগঞ্জ

সিংগাইরে পুলিশী বাঁধায় শরিয়ত বয়াতির পালা গানের অনুষ্ঠান বন্ধ

বৈশ্বিক মহামারী করোনাকালীন সময়ে বিনা অনুমতিতে  বিতর্কিত বাউল শিল্পী শরিয়ত সরকারের পালাগানের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে থানা পুলিশ। সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের জায়গীর গ্রামে প্রয়াত কালাচান সরকারের বাড়িতে বাৎসরিক ওরসে গানের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে আগত দর্শনার্থী ও ভক্তবৃন্দদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, রাত সাড়ে ৯ টার দিকে শরিয়ত সরকার ও হানিফ সরকারের মধ্যে পালাগান শুরু  হয়। প্রথমে শরিয়ত সরকার তার আসর বন্দনা ও পরিচয় পর্ব শেষ করেন। পরবর্তীতে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে হানিফ সরকার গানের জন্য মঞ্চে  দাঁড়ান। এ সময় সিংগাইর থানার এসআই আলমগীর হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে করোনাকালীন  সময়ে অনুমতি ছাড়া ব্যাপক লোকসমাগমের কারনে গানের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।

প্রয়াত কালাচান পীরের নাতি ওরস পরিচালনাকারী  আনিছুর রহমান মোল্লা বলেন, আমরা ৫০/৬০ বছর ধরে এ অনুষ্ঠান পরিচালনা করে আসছি। প্রতিবছরের মতো এবারও আমরা বাৎসরিক ওরসের পাশাপাশি পালাগানের আয়োজন করেছিলাম। কে বা কারা ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ এসে আমাদের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়। এতে আমাদের আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি ভক্তবৃন্দ ও অনুসারিরা মনে আঘাত পেয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক মাওলানা বলেন, করোনাকালীন সময়ে যেহেতু ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিল বন্ধ রয়েছে। সেখানে একজন বিতর্কিত বাউল শিল্পী শরিয়ত বয়াতিকে দিয়ে এ ধরনের গানের অনুষ্ঠান পুলিশ প্রশাসন আমলে নিয়ে বন্ধ করে দেয়ায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।।

ধল্লা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, ওরস  অনুষ্ঠান ও পালাগানের  বিষয়টি আমাকে কেউ অবগত করেনি । তবে জানতে পেরেছি পুলিশ প্রশাসন রাতেই  ওই গানের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ  মোঃ রকিবুজ্জামান বলেন, পূর্ব  অনুমতি ছাড়া করোনাকালীন সময়ে এরকম একটি গণজমায়েত করার কারনে গানের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিতর্কিত বাউল শিল্পী শরিয়ত বয়াতি  ইতিপূর্বে  টাঙ্গাইলের একটি গানের অনুষ্ঠানে ইসলাম বিরোধী ও আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ন  বক্তব্য দেয়। ওই বক্তব্যটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার হওয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলে কারাভোগ করেন তিনি।