Opu Hasnat

আজ ২৫ জানুয়ারী সোমবার ২০২১,

কোভিট-১৯ পরিস্থিতিতে মোরেলগঞ্জে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে স্কুল ফিডিং বিস্কুট বাগেরহাট

কোভিট-১৯ পরিস্থিতিতে মোরেলগঞ্জে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে স্কুল ফিডিং বিস্কুট

শিশু শিক্ষার্থীদের পুষ্টি চাহিদা পূরণ ও কোভিট-১৯ পরিস্থিতির  কারনে চতুর্থবারের মত  বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে  বাড়ি বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে স্কুল ফিডিং বিস্কুট। উপজেলার ১৬ ইউনিয়ন ও পৌরসভার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও সরকারের“দারিদ্র পীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং কর্মসূচি” চলমান রয়েছে।

এ কর্মসূচির বাস্তবায়কারী সংস্থা রুরাল বিকনস্ট্রাকশন ফাউন্ডেশনের (আরআরএফ) কর্মীরা উপজেলার বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্কুল শিক্ষার্থীদের হাতে হাতে এ স্কুল ফিডিং বিস্কুট তুলে দিয়ে এ কার্যক্রমের সূচনা করেছে। এ প্রকল্পের আওতায় উপজেলার ৩০৯ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৪ টি স্বত্যন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসা রয়েছে। প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ রুহুল আমীন খান (অতিরিক্ত সচিব) এর নির্দেশনায় এবং মোরেলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ দেলোয়ার হোসেন এর অনুমোদন সাপেক্ষে প্রকল্পভুক্ত এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিস্কুট সরবরাহ করা হচ্ছে। 

পর্যায়ক্রমে প্রকল্পভুক্ত ৩১৩ টি স্কুলের ৩২৬৩৩ জন শিক্ষার্থীকে ৫৪-৫৫ প্যাকেট বিস্কুট অভিভাবকরা  হাতে হাতে এ বিষ্কুট পাবে।  প্রকল্পের ফিল্ড মনিটর তাপস বিশ্বাস, তাসলিমা সুলতানা, পিঝুষ গোস্বামী, সুমন মোল্লা বলেন, উপজেলার সকল শিক্ষার্থীর বাড়ি বাড়িতে গিয়ে এসব বিস্কুট সরবরাহ করা হচ্ছে। সহযোগীতা করছে প্রতিটি বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষকাবৃন্দ। 

প্রধান শিক্ষিকা ফারজানা বিথি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতেও শিক্ষার্থীরা বাড়িতেই পাচ্ছে এ বিস্কুট। এজন্য অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা ও খুশি।  

প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী তাপস সাধু ও মনিটরিং এন্ড রিপোটিং অফিসার উজ্জল কুমার রায় জানান, উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন এ বিস্কুট শিশুদের পুষ্টিহীনতা, শিক্ষণ ক্ষমতা বৃদ্ধি, ভর্তির হার, স্কুলের উপস্থিতি, এবং স্কুলের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর