Opu Hasnat

আজ ১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার ২০২০,

নুহাশ পল্লীতে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ৭২ তম জন্মদিন পালিত শিল্প ও সাহিত্যগাজীপুর

নুহাশ পল্লীতে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ৭২ তম জন্মদিন পালিত

নুহাশপল্লীতে নানা আয়োজনে পালিত হলো নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ৭২ তম জন্মদিন। মোমবাতি প্রজ্বলন, কবর জিয়ারত, সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও কেক কাটার মধ্য দিয়ে লেখকে স্মরণ করল তাঁর পরিবার, স্বজন, নুহাপল্লীর স্টাফ ও ভক্ত পাঠকরা। সকালে লেখকের পরিবার, নুহাশপল্লীর স্টাফ, ভক্ত পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের উপস্থিতিতে সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা করা হয়। পরে লেখকের ম্যুরালের সামনে কেক কাটা হয়। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিল লেখকের কনিষ্ঠ দুই পুত্র নিষাদ ও নিনিত।হুমায়ূন আহমেদের স্বপ্ন পূরণ করবার পাশাপাশি লেখককে নতুন প্রজন্ম সাগ্রহে পাঠ করছে এটা এক নতুন উপলব্ধি বলে জানায় তাঁর পরিবার। রাতে  লেখকের সমাধিতে ১ হাজার ১টি মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়।

হুমায়ূন ভক্ত কয়েকজন জানান, পাঠকরা ভালোবাসা ও শ্রদ্ধায় আজীবন লেখককে স্মরণ করে যাবেন বলে জানান।

হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন জানান, লেখকের স্বপ্ন ধীরে ধীরে পূরণ হচ্ছে। নতুন প্রজন্ম বিশেষ করে এই পেন্ডামিককালে হুমায়ূন আহমেদের লেখা পাঠ করছেন এবং তাঁর লেখার ভেতরকার রস, বোধ ও মানবিকতার সাথে পরিচিত হচ্ছেন এটা বিস্ময়কর। 

এদিকে সকালে থেকেই হুমায়ূন আহমেদের ভক্তরা, হিমু পরিবহণের সদস্য নুহাশ পল্লীতে আসতে দেখা গেছে। তারা হুমায়ূন আহমেদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবদেন এবং ঘুরে ঘুরে নূহাশ পল্লী দেখেছেন।

উল্লেখ্য- সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া থানার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। দূরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি মৃত্যুবরন করেন। পরে গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে তাঁকে সমাহিত করা হয়।