Opu Hasnat

আজ ২১ অক্টোবর বুধবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

এ বছর শান্তিতে নোবেল পেলো বিশ্ব খাদ‌্য কর্মসূচি আন্তর্জাতিক

এ বছর শান্তিতে নোবেল পেলো বিশ্ব খাদ‌্য কর্মসূচি

এ বছর শান্তিতে নোবেল পেয়েছে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম বা ডব্লিউএফপি)। শুক্রবার (৯ অক্টোবর) নোবেল কমিটি এ ঘোষণা দেয়। 

নোবেল কমিটি জানায়, ক্ষুধার হুমকির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ডব্লিউএফপিকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি জাতিসংঘের খাদ্য সহায়তা সংক্রান্ত শাখা। ক্ষুধা ও খাদ্য নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িত বিশ্বের বৃহত্তম সংস্থা এটি। এর সদর দপ্তর ইতালির রোমে। ২০১৯ সালে সংস্থাটি ৮৮টি দেশে প্রায় ১০ কোটি মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে।

করোনা ভাইরাসের কারণে বৈশ্বিক ক্ষুধা পরিস্থিতি আরও তীব্র হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী বিশ্ব খাদ্য সংস্থা অভূতপূর্ব সক্ষমতা দেখিয়েছে বলেও জানায় নোবেল কমিটি।

নরওয়ের নোবেল কমিটির সভাপতি বেরিট রেইস-অ্যান্ডারসন এ বছর শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এ সময় সেখানে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। 

তিনি বলেন, বিশ্ব খাদ্য সংস্থাকে শান্তিতে নোবেল দেয়ার কারণ হলো- ক্ষুধার্ত এবং ক্ষুধার হুমকিতে থাকা লাখ লাখ মানুষের প্রতি সংস্থাটি সজাগ ছিল। 

মানুষ যাতে ক্ষুধায় না ভোগে তা নিশ্চিতে জাতিসংঘের সংস্থাটিকে পর্যাপ্ত অর্থ সহায়তা দিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানানোও এ পুরস্কারের লক্ষ্য বলে জানান তিনি। বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারি ছাড়াও ডব্লিউএফপি নোবেল পাওয়া জন্য যোগ্য ছিল। বৈশ্বিক এ সংকটে সংস্থাটি যেভাবে বহুপক্ষীয় পদক্ষেপ নিয়েছে, সেগুলো ডব্লিউএফপিকে নোবেলের জন্য আরও যোগ্যতর করেছে বলে জানান নোবেল কমিটির চেয়ারম্যান।

জাতিসংঘের খুবই গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা ডব্লিউএফপি। মানুষের অধিকার রক্ষায় জাতিসংঘ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তিনি আরও বলেন, খাদ্য মানুষের অতীব গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক চাহিদা।

শান্তিতে নোবেলের জন্য এ বছর বিবেচনায় ছিলেন ৩১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান। এর আগে গত বছর এ শান্তিতে নোবেল পেয়েছিলেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ আলী। তিনিও যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য নোবেল পান।

আগামী ১০ ডিসেম্বর আলফ্রেড নোবেলের মৃত্যুবার্ষিকীতে এ বছর বিজয়ী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে নোবেল পুরস্কার তুলে দেয়া হবে। করোনার কারণে আয়োজন সীমিত করা হয়েছে।