Opu Hasnat

আজ ২৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

দুই ছাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন শিক্ষক চুয়াডাঙ্গা

দুই ছাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন শিক্ষক

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কাঞ্চনতলা গ্রামে ভৈরব নদীতে গোসল করতে গিয়ে অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন স্কুল ছাত্রী সোভা খাতুন (১০) ও জান্নাতুল ফেরদৌস (১০)। সোভা খাতুন কাঞ্চনতলা গ্রামে শুকুর আলির মেয়ে ও জান্নাতুল ফেরদৌস একই গ্রামের আব্দুল আলিমের মেয়ে উভয় কাঞ্চনতলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনির ছাত্রী। উভয়কে ডুবন্ত অবস্থায় উদ্ধার করলেন একই বিদ্যালয়ের শিক্ষক বিল্লাল হোসেন। বুধবার দুপুর ২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার দুপুরে সোভা ও জান্নাতুলসহ ৫/৬জন মিলে কাঞ্চনতলা গ্রামে উত্তর দিক দিয়ে বয়ে যাওয়া ভৈরব নদীতে গোসল করতে যায়। গোসলের এক ফাঁকে অসাবধানতা বসত সোভা ও জান্নাতুল নদীতে ডুবে যায়। 

এসময় তাদের সাথে থাকা বান্ধবিরা সোভা নদীতে ডুবে গেছে বলে চিৎকার করতে থাকে। একই স্থানে গোসল করছিল একই গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বিল্লাল হোসেন। এসময় শিক্ষক বিল্লাল হোসেন গোলস করা ঘাট থেকে প্রায় ৫০গজ দুরে ডুবন্ত সোভার হাতের আঙ্গুল দেখতে পেয়ে তাকে দ্রুত উদ্ধার করতে যায়। সোভাকে উদ্ধারের সময় তার পরনের জামাকাপড় আটকে ধরে রাখা অবস্থায় জান্নাতুল কে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে।

শিক্ষক বিল্লাল হোসেন জানান, আমি নদীতে গোসল করে ডাঙ্গায় উঠে সোভা নদীতে ডুবে গেছে মেয়েদের এমন চিৎকার শুনে নদীতে সোভার হাতের আঙ্গুল দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করতে যায়। উদ্ধারের সময় তার পরনের কাপড় আটকে ধরে থাকা মৃতু প্রায় অবস্থায় বহু কষ্ট করে উভয়কে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উভয়ই চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নদীতে বাঁধ থাকায় নদীর পানির বাঁধাসৃষ্টি হয়ে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় ডুবার সাথে সাথেই তার গোসল করা ঘাট থেকে প্রায় ৫০গজ দুরে চলে যায়। শিক্ষক আরো বলেন সে একজন ডুবে গেছে ভেবে তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে দুইজনে এক সাথে উদ্ধার করতে গিয়ে বহুকষ্টে উভয়কে কাধে তুলে নিয়ে কোন রকমে নদীর কিনারে উঠতে সক্ষম হয়।