Opu Hasnat

আজ ২৮ অক্টোবর বুধবার ২০২০,

গণধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বন্ধ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন খাগড়াছড়ি

গণধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বন্ধ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলাতে ডাকাতি ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণসহ দেশব্যাপী নারী নির্যাতন বন্ধ ও অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কোর্ট বিল্ডিং এলাকাতে মানববন্ধন করেছে শিল্পী সমাজ। মানববন্ধন থেকে ধর্ষকদের কোন ধরনের আইনী সহায়তা না দেওয়ার জন্য আইনজীবিদের অনুরোধ জানানো হয়।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে খাগড়াছড়ির মিউজিক্যাল ব্যান্ড এসোসিয়েশন ও গ্রীন ব্যান্ড কমিউনিটির আয়োজিত ব্যানারে এ মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি দুগ্য মারমা, উপদেষ্টা শাহীন, সহ-সভাপতি রাসেল ও সদস্য নুর হোসেন। 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আইনের যথাযথ প্রয়োগ না হওয়ার কারণে দেশে ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বেগজনক হারে বেড়ে গেছে। ধর্ষণকারীদের সামাজিকভাবে প্রতিহত করার পাশাপাশি ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা।

এদিকে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ট্রামাক্রান্ত নারীর উন্নত চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস ভিকটিমের মায়ের হাতে ৫০হাজার টাকার অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন।

গত বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত আড়াই টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ি জেলার বলপাইয়া আদাম এলাকায় বিন্দু লাল চাকমার বাড়িতে দুর্র্ধষ ডাকাতির ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে (২৬) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ৯জন সদস্যের ডাকাত দলের সদস্যরা ঘরের নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার, মোবাইল লুট করার পাশাপাশি একটি কক্ষে নিয়ে তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে(২৬) বেঁধে রেখে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে। 

পরে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে সদর থানায় পৃথক দু’টি মামলা করেন। এ ঘটনায় ধর্ষিতা মা ২৪শে সেপ্টেম্বর বিকেলে ৯জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ডাকাতির ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় জড়িত নয় জনের মধ্যে সাত জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ মাত্র ৪৮ঘন্টার মধ্যে আসামিদের চিহিৃত করে চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৭জর আসামিকে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামালসহ ডাকাতির সময় ব্যবহৃত সিএনজি অটো রিক্সাটি উদ্বার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার ৬জন ইতোমধ্যে আদালতে ১৬৪ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। 

এছাড়া গত শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটক রেখে এক গৃহবধূকে ছাত্রলীগের ছয়জন কর্মী গণধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

খাগড়াছড়ি ও সিলেটে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের বিচারের দাবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ : খাগড়াছড়িতে প্রতিবন্ধী নারীকে ও সিলেটের এমসি কলেজে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের প্রতিবাদে এবং দোষীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রদল। সোমবার সকালে খাগড়াছড়ি সদরের মিল্লাত চত্বর থেকে জেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলকারীরা প্রধান সড়কে উঠতে চাইলে গণপূর্ত ভবনের সামনে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। পরে সেখানে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে জেলা ছাত্রদল সভাপতি শাহেদ সুমন, সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলম বক্তব্য রাখেন। এ সময় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনিসুল আলম আনিক, দপ্তর সম্পাদক বাপ্পী দাশ অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ায় সারাদেশে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা বাড়ছে। ধর্ষকদের রাজনৈতিক আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়ায় আইনের সুশাসন প্রতিষ্ঠা হচ্ছে না। অবিলম্বে খাগড়াছড়ি ও সারাদেশে সংগঠিত নারী ও শিশু নির্যাতনের দৃষ্টাস্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতে খাগড়াছড়ি সদরের বলপাইয়া গ্রাম এলাকায় ডাকাতি করতে ঢুকে প্রতিবন্ধী এক নারীকে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় ৯জন জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পর পুলিশ ৭জনকে গ্রেফতার করেছে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর