Opu Hasnat

আজ ৩০ অক্টোবর শুক্রবার ২০২০,

সিংগাইরে খাবারের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে দু’পরিবারের ২ লাখ টাকা লুট মানিকগঞ্জ

সিংগাইরে খাবারের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে দু’পরিবারের ২ লাখ টাকা লুট

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোজাম্মেল হোসেন খানের বাড়িতে খাবারের সাথে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে তার ছোট বোন সেলিনা হকের (৫৫)  মৃত্যুর রেশ না কাটতেই আবারো খাবারের সাথে চেতনানাশক ওষুধ খাওয়ানোর ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে জামির্ত্তা ইউনিয়নের আলীনগর গ্রামে দু’পরিবারের ১৩ সদস্যকে চেতনানাশক ওষুধ খাওয়ানো হয়েছে। এতে এক পরিবার থেকেই লুটে নেয়া হয়েছে প্রায় দু’ লাখ টাকা। 

অচেতন হওয়া পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওইদিন দুপুরের খাবার খেয়ে আলীনগর গ্রামের সামছুদ্দিন ডিলার (৭৮) ও তার প্রতিবেশী ছকিল উদ্দিনের বাড়ির সদস্যরা অচেতন হয়ে পড়েন। রাতে সামছুদ্দিন ডিলারের বাড়ির কলাপসিবল গেটের তালা ভেঙ্গে সুকেজ থেকে নগদ ৮৫ ও আলমারি ভেঙ্গে ১ লাখ ৪ হাজার টাকা দুবৃর্ত্তরা লুটে নেয়। অপরদিকে, ছকিল উদ্দিনের পরিবারের সদস্যদের অচেতন হওয়ার বিষয়টি তার ভাই আব্দুল করিম টের পেয়ে রাতে পাহারা দিয়ে নিজের বাড়ির মালামাল লুট হওয়া থেকে রেহাই পান।

জানা গেছে, সামুছুদ্দিন পরিবারের অচেতন হওয়া সদস্যরা হচ্ছেন- গৃহকর্তার স্ত্রী রাজিয়া খাতুন (৭০), পুত্র আব্দুল লতিফ (৪৫), পুত্রবধূ রিনা আক্তার (৩৮), নাতনী শামীমা (১৬), আয়েশা (১৪) ও নাতি ইব্রাহিম (১১)। এদের মধ্যে রাজিয়া খাতুনের অবস্থা আশংকাজনক। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন।

ছকিল উদ্দিনের পরিবারের সদস্যরা হচ্ছেন- গৃহকর্তার স্ত্রী হেনা বেগম (৫৫), পুত্র দেলোয়ার হোসেন (৪০), পুত্রবধূ ঝর্ণা আক্তার (৩৫), নাতি স্বপন (১৭), নাতনী যুথি (১২) ও প্রতিবেশী আব্দুল করিমের নাতনী বৃষ্টি আক্তার (১৩)। তারাও প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। অচেতন হওয়া পরিবারদ্বয়ের সদস্যদের দাবি, হলুদের গুড়ার মধ্যে সাদা পাউডার জাতীয় কিছু একটা  দেখা গেছে। 

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রকিবুজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত আমার কাছে কেউ কোনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি।