Opu Hasnat

আজ ৩১ অক্টোবর শনিবার ২০২০,

কালকিনিতে বকেয়া বেতনের দাবিতে কলেজ শিক্ষকদের প্রতিবাদ মাদারীপুর

কালকিনিতে বকেয়া বেতনের দাবিতে কলেজ শিক্ষকদের প্রতিবাদ

মাদারীপুরের কালকিনিতে আট মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছেন নন-এমপিও শিক্ষক ও কর্মচারীরা। সোমবার দুপুরে কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন কলেজ ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবনের সামনে দাঁড়িয়ে তাঁরা এ প্রতিবাদ সভা করেন।

এ সময় নন-এমপিও শিক্ষক ও কর্মচারীরা জানান, বাংলাদেশে করোনা শুরু হওয়ার পর থেকে ৮ মাস কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন কলেজের ৭২ জন শিক্ষক ও প্রায় ৩০ জন কর্মচারী বেতন ভাতা পাচ্ছে না। অথচ শিক্ষকরা দৈনিক কলেজে এসে ভার্চুয়াল ক্লাসসহ দাপ্তরিক কাজ করেন। করোনার এই মহামারী সময়ে আট মাস বেতন না পেয়ে তারা খুবই মানবতেন জীবন পাড় করছেন। 

প্রতিবাদ সভায় শিক্ষকরা কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. হাসানুর সিরাজীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নানা অভিযোগ তোলেন। এ সময় শিক্ষকরা ‘এক দফা এক দাবি, সিরাজুল কবে যাবি’ স্লোগান দিয়ে অধ্যক্ষ হাসানুর সিরাজীর পদত্যাগের দাবি জানান।

প্রতিবাদ সভায় কলেজের বাংলা বিভাগের প্রধান ইয়াকুব খান বলেন, ‘শিক্ষা দান করাই হচ্ছে আমাদের শিক্ষকদের কাজ। কিন্তু আজ বাধ্য হয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়েছি। আমাদের দুর্দশার কথা জানানোর জন্য। শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন ও ভাতার ব্যাপারে যতোবার অধ্যক্ষের সাথে আমরা দেখা করতে চেয়েছি তিনি দেখা করেননি, বার বার আমাকে রিফিউজ করেছেন।’

সভায় কলেজের জেষ্ঠ্য শিক্ষক কাজী কামরুজ্জামান বলেন, ‘অধ্যক্ষ সাহেবের কার্যকলাপের জন্য আমরা তাকে উদ্ভট, অদক্ষ ও দুর্নীতিবাজ বলে থাকি। তিনি কালকিনি উপজেলায় তার কিছু অনুসারী তৈরি করেছেন। যাদের দিয়ে প্রায় সময় হুমকি ধামকি দিয়ে শিক্ষকদের দমানোর প্রচেষ্টা করে যাচ্ছেন। অধ্যক্ষের এই কর্মকান্ডের জন্য দীর্ঘদিনের এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিকে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে চলে আসছে। আমরা তার পদত্যাগ চাই, নয়তো সঠিক একটি সমাধাণ চাই।’

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. হাসানুল সিরাজী বলেন, ‘করোনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ও যথাসময়ে টিউশন ফি আদায় না হওয়ায় নন-এমপিও শিক্ষক ও কর্মচারীদের বকেয়া বেতন-ভাতা দেওয়া যাচ্ছে না। তারা বিপদে পড়েছেন কিন্তু এ বিষয় এই মুর্হুত্তে আমার কিছু করারও নেই। আর শিক্ষকরা বেতন ভাতা না পেয়ে আমার উপর ক্ষুদ্ধ হয়েই নানা অভিযোগ ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলছে।