Opu Hasnat

আজ ৩১ অক্টোবর শনিবার ২০২০,

ফরিদপুরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ ফরিদপুর

ফরিদপুরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার তালমা ইউনিয়নের গহেরপুর গ্রামের নিরীহ কয়েকটি পরিবারের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এরই ভিতর এই মামলায় নিরীহ ব্যক্তি আইয়ুব শেখ (৬২) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। 

সরোজমিনে গিয়ে জানাযায়, গত ১২ সেপ্টেম্বর শনিবার আইয়ুব শেখ তার নিজ জমি থেকে গাছ বিক্রি করেন গ্রাম্য শালিস র্বোডের অনুমতিতে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী বকুল মোল্যা তার মা মরিয়ম বেগমের উপর হামলা ও বাড়িতে লুটপাটের মিথ্যা এক এজাহার দায়ের করে থানায়। থানা এজাহার আমলে নিয়ে কোন রকম তদন্ত ছাড়াই গত ১৬ সেপ্টেম্বর বুধবার রাতে আইয়ুব মোল্যা নামে মামলার এক আসামীকে আটক করে। পরে তাকে ওই মামলায় কোর্টে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরন করে। 

এ বিষয়ে আইয়ুবের স্ত্রী মমতাজ বেগম অভিযোগ করে বলেন, জমিজমা নিয়ে বিরোধ ছিলো। সেই বিরোধ কদিন আগে এলাকার শালিসদাররা মীমাংসা করে দেয়। এরপর সেই জমি থেকে গাছ বিক্রি করে আমার স্বামী। তিনি অভিযোগ করে বলেন এই ঘটনায় প্রতিবেশী বকুল মোল্যা টাকা পয়সা দিয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমার স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ দিয়ে। তিনি আরো বলেন, বকুলের মা মরিয়ম বেগম মারপিটের জন্য মেডিকেলে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে যে চিকিৎসার কথা বলছে সেই বিষয়টিও মিথ্যা। এমন তারিখে মরিয়ম নামে কোন রোগি ভর্তি হয়নি মেডিকেলে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এছাড়া আমার স্বামীকে আটকের পর মারধর করা হয় বলেও তিনি জানান। 

গ্রামের রাহেলা বেগম বলেন, এলাকায় এমন কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা আপনারা এলাকায় জেনে দেখেন। এমনকি যারা মামলা করেছে তারাও বলতে পারবে না। জমিজমা সংক্রান্ত ঘটনায় টাকা দিয়ে এই মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে বকুল। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। 

এদিকে এ বিষয়ে বকুল মিয়ার বাড়িতে গিয়ে জানতে চাইলে বাদির স্ত্রী রেহেলা বেগম ও পরিবারের সদস্যরা ঘরের দরজা জানলা বন্ধ করে এই বিষয়ে কিছু বলতে পারবে না বলে জানান।  

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা নগরকান্দা থানার উপপরিদর্শক মোঃ সিরাজুল ইসলাম এর কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই মামলাটির তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে ঘটনার সত্যতা পেলে চার্জশিট দেয়া হবে। তদন্তের আগে মামলা নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন কেউ অভিযোগ দিলে অভিযোগের তদন্ত হয়। বাদি থানায় এজাহার দাখিল করেছেন যে কারনে সরাসরি মামলা হয়েছে। 

এদিকে মিথ্যা মামলায় কয়েকজনকে আসামী ও একজনকে আটকের ঘটনায় এলাকায় পরিস্থিতি উৎতপ্ত হয়ে উঠেছে। যেকোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের কোন ঘটনা বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছে।       

এই বিভাগের অন্যান্য খবর