Opu Hasnat

আজ ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার ২০২০,

ফরিদপুরের দুই হাজার কোটি টাকার পাচারের মামলার চার্জশিট দুমাসের মধ্যেই ফরিদপুর

ফরিদপুরের দুই হাজার কোটি টাকার পাচারের মামলার চার্জশিট দুমাসের মধ্যেই

জমি দিবি নাকি দখল করবো-এমন হুমকি দিয়েই কয়েক হাজার বিঘা জমির মালিক হয়েছেন ফরিদপুরের আলোচিত দুই ভাই বরকত ও রুবেল। হাতুড়ি ও হেলমেট বাহিনীর প্রভাবে বাগিয়েছেন হাজার হাজার কোটি টাকা মূল্যের টেন্ডার। এই দুটি ক্ষেত্রেই যোগসাজস রয়েছে এক শ্রেনির সরকারী অসাধু কর্মকর্তাদের। সিআইডি বলছে, আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো ২৫ জনের নাম এসেছে। কমিশন ভোগী গডফাদারদের তথ্যও দিয়েছেন তারা।

ফরিদপুর শহরের ধলার মোড় থেকে ট্রলারে চরে যেতে সময় লাগে আড়াই ঘণ্টা। সেখানে ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক বরকত ও ভাই রুবেল দখল করেছেন ১১২ একরেরও বেশি জমি। গড়েছেন মালটা, নারিকেল আর কলা বাগান। আছে হাঁস, মুরগী ও গরুর খামার।

ফরিদপুর বাইপাস সড়কের দুই পাশে যে দিকে দুচোখ যায় শতশত একর জমির মালিক বনে গেছেন রুবেল ও বরকত। কোনো জমি কিনেছেন পানির দামে আবার কোনটা জোর করে হেবা দলিল করিয়ে। শুধু জমি দখলই নয়। কয়েকবছরে বাগিয়েছেন হাজার হাজার কোটি টাকার টেন্ডার। গ্রেফতারের পর বিতর্কের মুখে প্রায় একশো কোটি টাকা মূল্যের ২৫টি টেন্ডারের কার্যাদেশ বাতিল করেছে-এলজিইডি। আরো বাতিলের অপেক্ষায় রয়েছে ১৩টি কার্যাদেশ। যা এই মাসের মধ্যে বাতিল করা হবে বলে জানাগেছে।  

এদিকে রুবেল ও বরকতের সহযোগি ও নির্দেশদাতা আরো যে সব লুটেরা দুর্বৃত্তরা রয়েছে তাদের জেলাসহ দেশের বিভিন্ন সরকারী অফিসের কাজের কার্যাদেশ বাতিলের জোর দাবি জানিয়েছেন ফরিদপুরের বিশিষ্টজনেরা। 

সিআইডি বলছে, বরকত-রুবেলসহ গ্রেফতার ৯ আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো ২৫ জনের নাম উঠে এসেছে। তাদের সম্পৃক্ততা এখন যাচাই করছেন তারা।

অতিরিক্ত ডিআইজি রেজায়ল হায়দার বলেন, কাছের দিক দিয়েই আছে প্রায় ২৫ থেকে ২৬ জন। যাদের নাম ঘুরে ফিরেই আসছে।

সবঠিক থাকলে দুমাসের মধ্যে ২০০০ হাজার কোটি টাকা পাচারের আলোচিত এই মামলার চার্জশিট আদালতে জমা দেয়া হবে বলে জানিয়েছে সিআইডি।