Opu Hasnat

আজ ৩০ সেপ্টেম্বর বুধবার ২০২০,

দামুড়হুদায় বোরো ধান কাটায় ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকরা, বাম্পার ফলনের আশা কৃষি সংবাদচুয়াডাঙ্গা

দামুড়হুদায় বোরো ধান কাটায় ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকরা, বাম্পার ফলনের আশা

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় রোপা আউষ ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন উপজেলার কৃষকরা। দামুড়হুদা উপজেলার মাঠে মাঠে হাজার হাজার বিঘা সোনালী রংঙ্গের এই পাকা ধান বাতাসে দোল খাচ্ছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবার চাষীরা ভালো লাভবান হওয়ার আশা করছেন। 

দামুড়হুদা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, বোরো ধানের ভালো ফলন ও বাজার দর ভালো পাওয়ায় এবার কৃষকরা এই রোপা আউষ চাষের দিকে বেশি ঝুকে পড়েছে।উপজেলায় এবার রোপা আউষ ধানের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছিল ৯হাজার ৩শ’ ৬৫হেক্টর জমিতে।আবাদ হয়েছে ১০হাজার ৫শ’ ৮৪হেক্টর জমিতে। যা লক্ষমাত্রার চেয়ে ১২শ’১৯ হেক্টর জমিতে বেশি।উৎপাদনের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে ৫০হাজার ৮শ’৩মেট্রিক টন। ইতিমধ্যে আগাম লাগানো  জমির ধান কাটা শুরু হয়েছে। আর কয়েক দিনের মধ্যে পুরো পুরি ভাবে মাঠের ধান কাটা শুরু হয়ে যাবে।ফলন ও ভালো হচ্ছে বিঘা প্রতি ১৭ থেকে ১৮ মণ ফলন হচ্ছে। এমন বাজার দর পেলে চাষিরা ভালো লাভবান হবে বলে আশা করছেন। দামুড়হুদা উপজেলাসদরসহ হাউলি, দেউলী, জয়রামপুর, বিষ্ণপুর, রামনগর, কলাবাড়ী ও সীমান্তবর্তী কুতুবপুর, মুন্সিপুর গ্রামের মাঠে ব্যাপক আকারে রোপা আউষ ধানের আবাদ হয়েছে।

দামুড়হুদা উপজেলা সদরের চাষী বেল্টু রহমান ও অক্তার হোসেন বলেন, উভই দামুড়হুদা কলেজ মাঠে তিন বিঘা করে এবার বোরো ধান আবাদ করেছে খরচ খুবই কম হয়েছে। চলতি মোরসুমে অতি বৃষ্টির কারনে ক্ষেতে  সেচ দিতে হয়নি। শুধু মাত্র সার ও নিড়ানি খরচ লেগেছে। ধান খুবই ভালো হয়েছে। ফলন ভালো হবে বলে আশা করছেন।কয়েক দিনের মধ্যেই ধান কাটা শুরু করবে। বাজার দর ভালো আছে এমন বাজার দর থাকলে ভালো লাভ হবে। কার্পাসডাঙ্গা গ্রামের চাষি রতন বিশ্বাস বলেন, তার এবার দুই বিঘা জমিতে আউষ ধানের চাষ করেছে এরমধ্যে এক বিঘা কাটা মাড়া হয়ে গেছে ফলন খুব ভালো হয়েছে এক বিঘায় তার ১৮মন ধান হয়েছে। বাজার ও ভালো আছে এতে ভালো লাভবান হয়েছে।

দামুড়হুদা উপজেলা কৃষি অফিসার মনিরুজ্জামান জানান, এবার আমাদের উপজেলায় ব্রি-৪৮ জাতের ধানের আবাদই সবচেয়ে বেশি হয়েছে।এই জাতের ধানের ফলন সাধারনত বেশি হয়ে থাকে। বর্ষা মরসুমের এই ধানে এবার কোন রকম সেচ দিতে হয়নি ফলে খরচ কম হয়েছে। ইতোমধ্যে ধান কাটা শুরু হয়েছে ফলন ও ভালো হচ্ছে। বাজারদর ও ভালো আছে এমন বাজার থাকলে চাষিরা ভালো লাভবান হবে বলে তিনি আশা করছেন। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর