Opu Hasnat

আজ ২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ২০২০,

যশোর শিশু উন্নয়নকেন্দ্রে ২ গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ কিশোর নিহত যশোর

যশোর শিশু উন্নয়নকেন্দ্রে ২ গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ কিশোর নিহত

যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে বন্দি কিশোর অপরাধীদের মধ্যে সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে আরও একজন।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে যশোর শহরতলীর পুলেরহাটে অবস্থিত শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের অভ্যন্তরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যার দিকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষনা করেন। নিহতদের মরদেহ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতরা হচ্ছে- বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার তালিবপুর পূর্ব পাড়ার নান্নু প্রামাণিকের ছেলে নাঈম হোসেন (১৭), খুলনার দৌলতপুরের রোজা মিয়ার ছেলে পারভেজ হাসান রাব্বি (১৮) ও রাসেল হোসেন (১৮)। রাসেল হোসেনের পুরো ঠিকানা এখনও পাওয়া যায়নি।নিহতদের মধ্যে নাঈম হোসেন ধর্ষণ এবং পারভেজ হত্যা মামলায় শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে অন্তরীণ ছিল।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

যশোর পুলিশের ডিএসবির পরিদর্শক (ডিআই-১) এম মশিউর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের অভ্যন্তরে পাভেল গ্রুপ ও রবিউল গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে তিনজন নিহত হয়েছে। শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের কর্মকর্তারা সন্ধ্যায় মরদেহ হাসপাতাল মর্গে নিয়ে এসেছেন। কী কারণে এবং কখন এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রশিক্ষক মুশফিক জানান, কয়েকদিন আগে কেন্দ্রে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারিতে বেশ কয়েকজন আহত হয়। ওই ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার একটু আগে আবার সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে নাইম, রাব্বি ও রাসেল হোসেন গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে, ২০১৪ সালে আকাশ (১২) নামে এক শিশুকে শ্বাসরোধ ও গলাকেটে হত্যার ঘটনা ঘটে। এছাড়াও ২০০৭ সালে সুজন নামে এক কিশোর খুন হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে অসংখ্য বন্দি পালানোর নজির রয়েছে।