Opu Hasnat

আজ ২১ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০২০,

না ফেরার দেশে জনপ্রিয় নায়ক সাত্তার বিনোদন

না ফেরার দেশে জনপ্রিয় নায়ক সাত্তার

না ফেরার দেশে চলে গেলেন সাদাকালো যুগের ফোক ছবির অপ্রতিদ্বন্দ্বী চিত্রনায়ক সাত্তার। মঙ্গলবার (০৪ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টায় নারায়ণগঞ্জের নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাকে আইসিইউতে নেয়ার সময় তার মৃত্যু হয়। চিত্রনায়ক সাত্তার ২০১২, ২০১৫ ও ২০১৮ সালে তিনবার ব্রেনস্ট্রোক করেন। তারপর থেকে তিনি প্যারালাইজড হয়ে যান।
 
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, সাত্তার ভাই একসময়ে জনপ্রিয় নায়ক ছিলেন। বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে তিনি অসুস্থ। তার চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু সবাইকে কাঁদিয়ে আজ তিনি না ফেরার দেশে চলে গেলেন। আমি তার আত্মার শান্তি কামনা করছি এবং তার শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

আশির দশকের এই জনপ্রিয় নায়ক ক্যারিয়ারে ১১০ টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য ছবি হলো- ‘পাগলী’, ‘রঙ্গীন রূপবান’, ‘রঙ্গীন কাঞ্চনমালা’, ‘ঘর ভাঙা সংসার’, ‘রঙ্গীন রাখালবন্ধু’, ‘রঙ্গীন আলোমতি প্রেমকুমার’, ‘পাতাল বিজয়’, ‘রাজবধূ’, ‘রঙ্গীন সাতভাই চম্পা’, ‘ভিখারীর ছেলে’, ‘মধুমালা মদনকুমার’, ‘বেদকন্যা পঙ্খিরানী’, ‘মোহনবাঁশি’, ‘রঙ্গীন অরুণ বরুণ কিরণ মালা’, ‘জেলের মেয়ে রোশনী’, ‘বনবাসে বেদের মেয়ে জোছনা’, ‘ভালোবাসার যুদ্ধ’, ‘ইজ্জতের লড়াই’, ‘স্বামীহারা সুন্দরী’ এবং ‘চাচ্চু আমার চাচ্চু’ ইত্যাদি।