Opu Hasnat

আজ ১১ আগস্ট মঙ্গলবার ২০২০,

ব্রেকিং নিউজ

ছাতকে এলাকাবাসীর উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা মেরামত সুনামগঞ্জ

ছাতকে এলাকাবাসীর উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা মেরামত

সুনামগঞ্জের ছাতকে শ্যামপাড়া হতে কান্দিগাঁও সড়কটি এলাকাবাসীর উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে মেরামত কাজ সম্পন করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের এ মহামারী চলাকালে পাহাড়ী ঢল ও ভারী বর্ষনের ফলে প্রলয়নকারী বন্যার পানিতে তলিয়ে গিয়ে স্থানে স্থানে ভেঙ্গে পড়ে শ্যামপাড়া হতে কান্দিগাঁও সড়ক জনচলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। 

বৃহস্পতিবার (০২ জুলাই) সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় পানিবন্দী মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে ছাতক সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ছাতক এসসিএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাফিজ আলীর নেতৃত্বে ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে বন্যার পানিতে ভেঙ্গে যাওয়া সড়কটি স্থানে স্থানে বালি দিয়ে বস্তাবন্দী করে বাঁধ নির্মাণ ও ইটপাথর ফেলে জনচলাচলের উপযোগী করে তুলেন। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন রাতগাঁও, মুক্তিরগাঁও, তিররাই, মানষীনগর, কান্দিগাঁও, মধুকুনী, গদারমহল, চলিতারবাক সহ চরমহল্লা ইউনিয়নের কয়েক হাজার ছাত্র-ছাত্রী, দিন মজুর ব্যবসায়ী সহ নারী ও শিশুরা জীবনের ঝূকি নিয়ে চলাচল করে থাকেন। 

ছাতক সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ছাতক এসসিএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাফিজ আলী জানান, এ সড়কটি ছাতক দোয়ারার সংসদ সদস্য জনমানুষের নেতা ভাটিবাংলার সিংহ পুরুষ মুহিবুর রহমান মানিক প্রায় ২ যুগ আগে নির্মান কাজ করলেও আর কোন জনপ্রতিনিধি এ সড়কের উন্নয়ন কাজে হাত দেননি। তাই আমি আমার রাজনৈতিক গুরু ছাতক দোয়ারার সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিকের প্রতি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জোর দাবী জানাচ্ছি। শীঘ্রই পুনঃনির্মাণ কাজ করে এলাকাবাসীর দুর্ভোগ লাগব করতে। 

স্বেচ্ছাশ্রমে উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য আতাউর রহমান, ইউসুফ আলম সুমন, রানা দাস, রঞ্জিত সরকার, আব্দুল হামিদ, সুন্দর আলী, ওলিউল ইসলাম, আতিক মিয়া, কলমদর আলী, আব্দুল কাহার, সাবাজ আলী, সাহিদ আলী, লাল মিয়া, হাসান মিয়া, জুয়েল মিয়া, হোসাইন আহমদ, ফখর উদ্দিন, সুমন আজহার কফিল উদ্দিন, দুদু মিয়া, নুর আলী, রজত দাস, বিনু দাস, সায়েক আহমদ, আবুল হক, সেনা দাস, সুব্রত দাস, রইছ আলী, বিশ্ব দাস, সুরুজ আলী, আছাদুজ্জামান আসাদ। প্রত্যেকে নিজ নিজ উদ্যোগ দা, কুড়াল, কুদাল, সাবল হেমার বাশ সহ নির্মান সামগ্রী এনে সড়কটিকে রক্ষা করেন।