Opu Hasnat

আজ ৩০ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০২১,

করোনাকালে ব্র্যাক আশুগঞ্জের নানামুখী প্রশংসনীয় উদ্যোগ ব্রাহ্মনবাড়িয়া

করোনাকালে ব্র্যাক আশুগঞ্জের নানামুখী প্রশংসনীয় উদ্যোগ

করোনাকালে ব্র্যাক আশুগঞ্জ নানামুখী প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহন করেছে। এর মধ্যে করোনাভাইরাসের কারণে ব্র্যাক মাইক্রোফাইন্যান্স কর্র্মসূচী ২৪ মার্চ  থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত কিস্তি আদায় বন্ধ রেখেছে। ব্র্যাক আশুগঞ্জ শাখা উক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই ব্র্যাক আশুগঞ্জ এর সকল কর্মী কর্মস্থলে অবস্থান করে গ্রাহকদের বিভিন্নভাবে কোভিড-১৯ সম্পর্কে সচেতন করে তাদের সহায়তার কাজে নিয়োজিত আছেন। 

করোনাভাইরাসের সংক্রমন শুরুর পর থেকে ব্র্যাক আশুগঞ্জ উপজেলার জনসাধারণকে সচেতন করার লক্ষ্যে মাইকিং করা, সচেতনতামূলক প্রচারপত্র বিতরন, বিভিন্ন স্থানে সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা, সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখতে দোকানে দোকানে বৃত্ত তৈরী করাসহ ব্র্যাকের সাত সহস্রাধিক গ্রাহকের সাথে একাধিকবার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে সচেতন করা হয়েছে। 

ক্ষুদ্র আয়ের মানুষ কোননা কোনভাবে ক্ষুদ্র ঋণ দাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত। এই সব দরিদ্র মানুষের কথা চিন্তা করে ব্র্যাক আশুগঞ্জ ৩০জুন পর্যন্ত কিস্তি আদায় বন্ধ রাখার পাশাপাশি ৫০০জন ক্ষতিগ্রস্থ্য ও দরিদ্র গ্রাহকদেরকে ১০ লক্ষ টাকা সঞ্চয় বিকাশ এর মাধ্যমে ফেরৎ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ক্ষতিগ্রস্থ্য ক্ষুদ্র ব্যবসায়িদের কথা বিবেচনা করে ১০মে/২০২০ থেকে কৃষিখাত, মুদি দোকান এবং ফার্মেসী ব্যবসায়ীদের মধ্যে সীমিত আকারে ঋণ বিতরন অব্যাহত রাখা হয়েছে। 

অন্যদিকে, ব্র্যাকের স্বাস্থ্য পুষ্টি ও জনসংখ্যা কর্মসূচী এবং মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচী থেকে প্রতিবন্ধি ও নির্যাতিত ৬১জন নারীদের মধ্যে ১,০১,৫০০/- টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান এবং ৬৫০০ পরিবারে কোভিড-১৯ সচেতনতামূলক স্ট্রিকার লাগানো হয়। এই কার্যক্রমে সার্বিক নির্দেশনা দেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ অঞ্চলের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মঈনুল হক চৌধুরী (দাবি) ও আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মো. আবদুল গফফার (প্রগতি)  এবং আশুগঞ্জ উপজেলায় উক্ত কর্মক্রম বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দেন এলাকা ব্যবস্থাপক অরুন কুমার সাহা (দাবি) ও এলাকা ব্যবস্থাপক জয়দেব মন্ডল (প্রগতি) এবং সার্বিক সহযোগীতা করেন শাখা ব্যবস্থাপক লিটন কুমার সরকারসহ শাখার সকল কর্মীবৃন্দ।