Opu Hasnat

আজ ৬ জুলাই সোমবার ২০২০,

খাগড়াছড়িতে পাসের হার ৬৮.৫৭, জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়িতে পাসের হার ৬৮.৫৭, জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ৯টি উপজেলায় এবার এসএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ৭৬জন। পাস করেছে ৬হাজার ২২৩জন। পাসের হার ৬৮দশমিক ৫৭শতাংশ। জিপিএ-৫ এসেছে ৬৩টি। বিজ্ঞান বিভাগ থেকেই এসেছে ৬১টি জিপিএ-৫। বাকী দু’টি এসেছে ব্যবসা শিক্ষা বিভাগ থেকে। গেল বছরের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কম হলেও পাসের হার বেশি।

এবার বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১হাজার ৭৬৮জন। পাস করেছে ১হাজার ২৬১জন। এরমধ্যে ৬৫২জন ছাত্র ও ৫৯৯জন ছাত্রী। পাসের হার ৭০দশমিক ৭৬শতাংশ।

মানবিক বিভাগে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪হাজার ৮১২জন। পাস করেছে ৩হাজার ৯২জন। এরমধ্যে ১হাজার ২৫৩জন ছাত্র ও ১হাজার ৮৩৯জন ছাত্রী। পাসের হার ৫৪দশমিক ২৬শতাংশ। গেল বছরের মতো এবারও বিভাগটি থেকে কোনো জিপিএ-৫ আসেনি।

ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২হাজার ৪৯৬জন। পাস করেছে ১হাজার ৮৮০জন। এরমধ্যে ৯৯৮জন ছাত্র ও ৮৮২জন ছাত্রী। এ বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ এসেছে দু’টি।

গেল বছরের পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৬৫.৪৬ শতাংশ। পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১০হাজার ৭০৪জন। পাস করেছে ৭হাজার ৭০০জন। পাসের হার ৬৫দশমিক ৪৬শতাংশ। জিপিএ-৫ এসেছে ৬৯টি। গত তিন বছরের হিসেব অনুযায়ী জেলায় পাসের হার বেড়েছে।

এদিকে রোববার (৩১ মে) প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে মানিকছড়ি উপজেলার কৃতকার্য এক হাজার শিক্ষার্থীকে টপকিয়ে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থী নাজমীন আক্তার’কে সংবর্ধনা দিয়েছে উপজেলার মানবিক সংগঠন‘ স্মার্ট মানিকছড়ি’। সোমবার (১ জুন) সকাল ১০টায় উপজেলা সদ্য আত্মপ্রকাশ করা মানবিক সংগঠন‘স্মার্ট মানিকছড়ি’র পক্ষ থেকে উপজেলা কৃতি শিক্ষার্থী নাজমিন আক্তারের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন সংগঠনের শীর্ষ নেতারা। কৃতি শিক্ষার্থীর প্রতিষ্ঠান প্রধান মো: লুৎফর রহমান, অভিভাবক মো: সালাহ উদ্দীন,স্মার্ট মানিকছড়ির এডমিন মো: শরীফ ও সহযোদ্ধা মো: মোস্তফা আবির‘সহ সংগঠনের সহযোগিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় কৃতি শিক্ষার্থী নাজমীন আক্তার তার কৃতিত্বের জন্য শিক্ষক, অভিভাবকের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ভবিষতে সে চিকিৎসক ও ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন বলে অভিমত ব্যক্ত করে সকলের নিকট দোয়া কামনা করেন।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর