Opu Hasnat

আজ ৬ জুলাই সোমবার ২০২০,

খাগড়াছড়িতে ২ স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনায় আক্রান্ত ৯, মোট শনাক্ত ৩৮, সুস্থ ৪ খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়িতে ২ স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনায় আক্রান্ত ৯, মোট শনাক্ত ৩৮, সুস্থ ৪

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে ৭টি উপজেলা করোনাভাইরাস দখল করেছে। জেলা প্রশাসন ১৯মে’র মধ্যরাত থেকে খাগড়াছড়ি জেলায় করোনা ভাইরাসের বিস্তৃতি রোধে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত খাগড়াছড়ি জেলায় প্রবেশের উপর জেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও তা কার্যকর হয়নি। বরং এমন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রতিদিন মাইক্রোবাস, কার ও ট্রাকে করে শত শত গার্মেন্টস শ্রমিক খাগড়াছড়ি ঢুকেছে। তার খেসারত দিতে শুরু করেছে জেলাবাসী।

গত ২৪ ঘণ্টায় দুই স্বাস্থ্য কর্মীসহ নতুন করে আরো ৯জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের ১ স্বাস্থ্যকর্মীসহ ২জন, পানছড়িতে ১ স্বাস্থ্যকর্মীসহ ২জন, মাটিরাঙায় ২জন, রামগড় ১জন, মহালছড়িতে ১জন। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮জন। এরমধ্যে ১ পুলিশ সদস্যসহ ৪জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বাকি ২৫জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৬জন পুরুষ এবং ৩ জন মহিলা এবং এদের মধ্যে একজন ১২ বছরের শিশুও রয়েছে। এ নিয়ে জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে মোট ৭ উপজেলায় করোনা শনাক্ত হল। 

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের গোলাবাড়ীতে ১জন, কমলছড়ির ইটছড়িতে ১জন, কমলছড়ির ইটছড়িমুখে ১জন, মহালছড়িতে ২জন, মাটিরাঙার বাবু পাড়ায় ১জন, দীঘিনালায় ১জন ও পানছড়িতে ১জন।

খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা: নুপুর কান্তি দাশ জানান, আক্রান্তদের মধ্যে পুলিশের ১জন এসআইসহ এ পর্যন্ত ৪জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ পর্যন্ত ৮৮৮জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট এসেছে ৬৬২জনের। এদের মধ্যে ১জন শিশু ও ১জন স্বাস্থ্যকর্মীও রয়েছেন। তিনি সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। 

তিনি বলেন, আক্রান্তরা প্রায় সকলে জেলার বাইরে থেকে নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, আশুলিয়া ও কুমিল্লায় কর্মরত বিভিন্ন কারখানার শ্রমিক বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর