Opu Hasnat

আজ ৩ জুলাই শুক্রবার ২০২০,

বিএমএ নেতা ডা. শহীদ উল্লাহর ১৫‘শ পরিবারে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ খুলনা

বিএমএ নেতা ডা. শহীদ উল্লাহর ১৫‘শ পরিবারে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ

বাংলাদেশ সরকার সাধ্যমত চেষ্টা করছে মানুষের পাশে থাকার। পাশাপাশি আমরা যদি আমাদের ছোট ছোট হাতগুলো বাড়িয়ে দিই  মানুষের জন্য, জীবনের জন্য তবে  মনুষ্যত্বের শিকলে গড়া প্রতিরোধে পৃথিবী আবার প্রাণ ফিরে পাবে। তারই ধারাবাহিকতায়, অধ্যাপক ডাঃ শেখ শহীদ উল্লাহ নিজ উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে পাইকগাছা উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা সহ কয়রা উপজেলার ৭টি ইউনিয়ানে করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ কর্মহীন দরিদ্র মানুষের জন্য ৩ হাজার কেজি চাউল, ২ হাজার কেজি আলু ও ২ হাজার মাস্ক বিতরণ  করেছেন। 

এর মধ্যে পাইকগাছা পৌরসভা সহ উপজেলার ৭ টি ইউনিয়ন এবং কয়রা উপজেলার ৪ টি ইউনিয়ানে বিতরণ কারেছেন। 

এ ছাড়া পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫০টি ও কয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩০টি ডাক্তার ও স্বাস্থ্য কর্মীদের মাঝে পিপিই  সাস্হ সামগ্রী বিতরন করেন। তার জন্মভূমি গদাইপুর ইউনিয়নে  কর্মহীন শ্রমিক ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।  চাল, সেমাই,  চিনি,  সুজি,  দুধ, কিসমিস,  বাদাম,  সাবান,  মাস্ক, সহ অন্যান্য সামগ্রী। 

ডাঃ শেখ শহীদ উল্লাহ পক্ষে শুক্রবার বিকালে গদাইপুর গ্ৰামে এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন প্রাণি চিকিৎসক ও সাংবাদিক মোঃ ফসিয়ার রহমান। এ সময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পাইকগাছা উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপিকা ঢালী। 

অন্যান্যদের  মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  ইউপি সদস্য জবেদ আলী গাজী, মামুনুর রশিদ, মুজাহেদুর রহমান, শামীম হোসেন সহ অনেকে। 

অধ্যাপক ডাঃ শেখ মোহাম্মদ শহিদ উল্ল্যাহ বলেন, আমরা যেহেতু রাজনীতি করি সেহেতু দেশের এই পরিস্থিতে আমরা ঘরে বসে থাকতে পাড়িনা। জনগনের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা রয়েছে সেই জায়গা থেকেই জনগনের জন্য যে টুকু করা সম্ভব সে টুকুই করছি। 

তিনি বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস যে ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে তাতে আমরাও বেশ ক্ষতির সন্মুখীন হতে পারি । মানুষ সচেতন হলে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে ক্ষয়-ক্ষতির হাত থেকে অনেকটা মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এ জন্য সরকার প্রতিটি জেলায় এখন এই রোগের চিকিৎসার জন্য যাবতীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করেছে।