Opu Hasnat

আজ ৮ জুলাই বুধবার ২০২০,

শিমুলীয়া-কাঠালবাড়ি নৌরুটে আবার ফেরি চালু মুন্সিগঞ্জ

শিমুলীয়া-কাঠালবাড়ি নৌরুটে আবার ফেরি চালু

করোনা ও বৈরি আবহাওয়ার কারণে গত দু’দিন শিমুলীয়া-কাঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার পর গতকাল রাত সাড়ে ১১ টা থেকে ফেরি চালু করা হয় বিআইডব্লিউটিসির উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে।

সোমবার বিকেল থেকে করোনার দূর্যোগ ও ঘূর্নিঝড় আম্পান যাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থে নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে শিমুলিয়া - কাঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বিআইডাব্লিউটিসি ও বিআইডাব্লিউটি এ কর্তৃপক্ষ।

পরে শুক্রবার (২২ মে) সকাল থেকে ঘাট এলাকায় ছোট ছোট পরিবহন ফেরি পারপার হতে দেখা গেছে। তবে ঘাট এলাকায় কোন যাত্রীবাহী পরিবহন নেই। ঢাকা থেকে আসা যাত্রীরা অনেক দূর থেকে পায়ে হেটে ঘাটে পৌছাচ্ছে । লঞ্চ এবং সি বোট চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা ফেরিতেই পারি দিচ্ছে পদ্মা নদী।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়াঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, শিমুলিয়াঘাটে উভয়মুখেই যাত্রীদের চাপ দেখা গেছে। ঘাটে শত শত ছোট ছোট যানবাহন ফেরী পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। এতে সকাল থেকে নৌরুটে ১৩ টি ফেরী চালু রয়েছে।

মাওয়া ট্রাফিক ইনিসপেক্টর মো. হিল্লাল জানান, ফেরি ঘাটে আটকে থাকা পন্যবাহী গাড়ী পরাপার করা হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকে সাধারণ যাত্রীরা ঘাটে ভিড় করতে শুরু করে। ঘাটে দেড়শতাধিক পন্যবাহী গাড়ী রয়েছে। আস্তে আস্তে যাত্রীদের চাপ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মাওয়া ট্রাফিক ইনিসপেক্টর মো. হিল্লাল আরো জানান, তাবে কোন গণপরিবহন আসতে দেয়া হচ্ছে না। প্রাইভেট কার ছোটখাট যান চলতে দেয়া হয়েছে বলে ট্রাফিক ইনিসপেক্টর মো. হিল্লাল জানিয়েছেন।

অতিরিক্ত ডিআইজি অপরাধ জিহাদুল কবির জানান, যাত্রীদের সামাজিক দূরত্ব এবং সৃংঙ্খলা বজায় রেখে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। বর্তমানে ঘাট এলাকায় গাড়ী কিংবা যাত্রীদের কোন চাপ নেই। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর