Opu Hasnat

আজ ২২ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ২০২০,

মাগুরায় আম্পানের আঘাতে ৮৫৭১ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট কৃষি সংবাদমাগুরা

মাগুরায় আম্পানের আঘাতে ৮৫৭১ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট

সুপার সাইক্লোন আম্পান কেড়ে নিয়েছে মাগুরার হাজারো কৃষকের স্বপ্ন। জেলায় মোট ৮ হাজার ৫৭১ হেক্টর জমির কলা, পেঁপে, আম, লিচু, পাট, মরিচ ও সবজি ক্ষেত আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর।

অনেক এলাকায় গাছ উপড়ে পড়েছে। বুধবার রাত ৮ টার দিকে ঝড়ের শুরু থেকে বেলা বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা পর্যন্ত ১৫ ঘন্টা জেলায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন ছিলো। এ সময় মাগুরার ৪ উপজেলায় গড়ে ২০ মিলি মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

মাগুরা সদরের শ্রীকুন্ডি গ্রামের কৃষক ঈদুল শেখ জানান, তার ৬ বিঘা জমিতে কলা ও পেপে চাষ করেছে। কিন্তু সুপার সাইক্লোন আম্পানের তান্ডবে জমির কলা ও পেপে গাছ সব নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তার প্রায় ৪লক্ষ টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এমন ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে বর্গাচাষী  ঈদুল শেখ এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

মাগুরা পৌর এলাকার প্রান্তিক কৃষক বাবলু মোল্যা জানান, সে ২ একর জমিতে কলার চাষ করেছে। ঘূর্ণিঝড় আম্পানে তার জমির প্রায় দুই হাজার কলাগাছ নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তার প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে। সে আরো জানান এনজিওর লোন করে সে এই চাষআবাদ করেছিল। এই কলা বিক্রি করে লোন শোধ করার কথা ছিল তার। কিন্তু ঘুর্নিঝড়ে কলাগাছ নষ্ট হয়ে যাওয়াতে সে এখন পড়েছে বিপাকে। এখন তার আশা সরকারি কোন সহযোগীতা পেলে সে আবার ঘুরে দাড়াতে পারবে ।

সদর উপজেলার হাজরাপুর ইউনিয়নে চাষি মোঃ রবউল ইসলাম জানান, হাজরাপুরসহ আশ-পাশের এলাকায় ছোট-বড় মিলিয়ে ২০ হাজার লিচু , আম, কাঁঠাল, কলা, পেপে বাগান রয়েছে। যার মধ্যে  লিচু বাগান রয়েছে প্রায় ৭ হাজার। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে গোটা এলাকার সব ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। প্রতি বছর এসব এলাকা থেকে ৫০ থেকে ৬০ কোটি টাকার আম ও লিচু বিক্রি হয় । তাই এ এলাকার কৃষকরা তাদের ফসলহানীর কারণে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কৃষকের এই ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া কঠিনই হবে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জাহিদুল আমিন জানান, বর্তমানে জেলায়-৬০০ হেক্টর জমিতে লিচু, ১৩০০ হেক্টরে আম, ৭০০হেক্টরে কলা, ৬০০ হেক্টর জমিতে পেঁপে, ৬২০ হেক্টরে কাঠাল, ২০০ হেক্টর জমিতে নালিম,৭২০ হেক্টর মুগডাল, ২৭২০ হেক্টরে বিভিন্ন সবজি, ২৮২০ হেক্টরে তিল এবং ৩৫ হাজার ৪০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। ঝড় ও বৃষ্টিপাতে ক্ষতিগ্রস্ত মোট ৮ হাজার ৫৭১ হেক্টর জমির ফসলের মধ্যে পেঁপে ও কলার ক্ষেত সব চেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঝরে গেছে বিপুল সংখ্যক গাছের আম ও লিচু। ক্ষতি নিরুপণের কাজ চলছে।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর