Opu Hasnat

আজ ২৬ মে মঙ্গলবার ২০২০,

স্বাস্থ্য বিধি মানছেন না গ্রাহক, ব্যবসায়ী কেউই

করোনাভীতি উপেক্ষা করে পার্বতীপুরে ঈদের বাজারে উপচে পড়া ভীড় দিনাজপুর

করোনাভীতি উপেক্ষা করে পার্বতীপুরে ঈদের বাজারে উপচে পড়া ভীড়

ঈদের ক্ষণগননা ক্রমেই ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে দিনাজপুরের পার্বতীপুর শহরের বিভিন্ন কাপড়, কসমেটিক্স ও জুতার দোকানে গ্রাহকদের উপচে পড়া ভীড়। বাজারে মানুষের ঢল দেখে মনে হচ্ছে পার্বতীপুরের মানুষ ভুলে গেছে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ব্যাপকতা। 

মঙ্গলবার সকালে শহরের কাপড় পট্টি, চুড়ি পট্টি, প্রেসক্লাব সড়ক, শহীদ মিনার সড়ক ঘুরে দেখা যায়, এসব সড়কের কাপড়, জুতা ও প্রসাধনীর দোকানে গ্রাহকদের প্রচন্ড ভীড়। কোন ভাবে দোকানে ঢোকার জোঁ নেই। এমনকি ভীড়ের চোটে এসব সড়কে মোটরসাইকেল, রিক্সা-ভ্যান এমনকি খালি মানুষ চলাচল করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। রাস্তা ও দোকান লোকে লোকারন্য। কেউ মানছে না সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঘোষিত স্বাস্থ্য বিধি। যদিও প্রায় প্রতিটি দোকানের সামনে ‘‘স্বাস্থ্য বিধি না মানলে মৃত্যু ঝুঁকি আছে’’ শিরোনামে সতর্কতা মূলক ফলক ঝুলানো রয়েছে। এ সতর্কতা মূলক ফলক ঝুলিয়ে যেন দায় মুক্ত হয়েছেন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের মালিকরা। এব্যাপারে মতামত জানতে চাওয়া হলে গ্রাহকরা কোন জবাব দিতে রাজি হননি।  

তবে, পার্বতীপুর বস্ত্র ব্যবসায়ী উন্নয়ন সমিতির সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, একজন ক্রেতা ৪-৫ জন সঙ্গী নিয়ে দোকানে ঢুকছেন। কোন ভাবে তাদের নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছে না। একেকজন ক্রেতা একা বাজার করতে আসলে মানুষের ভীড় এক পঞ্চমাংশে নেমে আসতো। 

বাজারে মানুষের ভীড় সামলাতে আইনশৃংখলা বাহিনীর কোন তৎপরতাও চোখে পড়েনি। উল্লেখ্য করোনা সংকটের শুরু থেকে স্বল্প পরিসরে সীমিত সময়ের জন্য বাজার খোলা থাকলেও গত রোববার (১০ মে) থেকে সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত বাজার খোলা রাখার নিদের্শনা জারীর পর থেকে পার্বতীপুর শহরের বিভিন্ন দোকানপাটে লক্ষ করা যাচ্ছে গ্রাহকদের নিযন্ত্রনহীন জন স্রোত। এতে পার্বতীপুরে করোনা সংক্রমনের ঝুঁকিও কয়েকগুন বৃদ্ধির আশংকা করা হচ্ছে।  

এবিষয়ে পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছাঃ শাহনাজ মিথুন মুন্নী বলেন, ক্রেতা-বিক্রেতা সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। প্রতিটি দোকানের সামনে স্বাস্থ্য বিধি না মানলে মৃত্যু ঝুঁকি আছে শিরোনামে সতর্কতা মূলক ফলক ঝুলানো, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখা, ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ের মাস্ক পড়া, হ্যান্ডগ্লাভস ব্যবহার করা, দুরত্বে ক্রেতাদের অবস্থান নিশ্চিত বিষয়ে নিদের্শনা দেয়া হয়েছে। সরকারি নিদের্শনা অমান্যকারিদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর