Opu Hasnat

আজ ২৯ মে শুক্রবার ২০২০,

রাজবাড়ীতে মার্কেটে দুরত্ব বজায় রাখতে কাজী ইরাদত আলীর বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহন গোপালগঞ্জ

রাজবাড়ীতে মার্কেটে দুরত্ব বজায় রাখতে কাজী ইরাদত আলীর বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহন

করোনা ভাইরাসের কারনে দুই মাস বন্ধ থাকার পর রাজবাড়ীর সবগুলো মার্কেটের দোকান পাঠ খুলেছে। মার্কেটে মার্কেটে কেনাকাটার জন্য ভীর করছে সাধারন মানুষ। কোন ক্রেতা বা বিক্রেতা যাতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয় সেজন্য বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহন করেছেন রাজবাড়ীর চেম্বাস অব কমার্স এন্ড ইন্টাজট্রিজের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী। 

রাজবাড়ীর ব্যাবসায়ী ও ক্রেতা সাধারনের কথা বিবেচনা করে সরকারী নির্দেশনা মেনে সকাল ১০ টায়  রাজবাড়ীর বিসমিল্লাহ প্লাজা, মোনাক্কা টাওয়ার, কাদেরিয়া সুপার মার্কেট, জলিল খান সুপার মার্কেট ও পৌর বিপনী বিতানের দোকান পাঠ খুলতে শুরু করেছে। যা প্রতিদিন বিকেল ৪ টা পর্র্যন্ত খোলা থাকছে। এই সময়ে কেনাকাটার জন্য বাজারে ভীর করছে সাধারন মানুষ। রাজবাড়ীর মানুষ যাতে করোনায় আক্রান্ত না হয় সেজন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সাথে সমন্নয় করে রাজবাড়ীর চেম্বাস অব কমার্স এন্ড ইন্টাজট্রিজের সভাপতি কাজী ইরাদত আলীর নির্দেশনায়, নিয়ম মেনে কেনাকাটা শুরু হয়েছে। বাজারের প্রবেশ পথে বিলি করা হচ্ছে সচেতনামূলক লিপলেট, এছারাও প্রতিটি দোকানের সামনে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে মানুষ যাতে কেনাকাটা করে সেজন্য নিয়ন্ত্রন কক্ষ থেকে মাইকিং করে সতর্ক করা হচ্ছে। 

রাজবাড়ী চেম্বাস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাসট্রিজের পরিচালক সফিকুল ইসলাম জানান, চেম্বারস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাসট্রিজের সভাপতি কাজী ইরাদত আলীর নির্দেশনায় পুরো মার্কেটে ৮ টি স্পটে মাইকিং করে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে বার বার বলা হচ্ছে। বাজার মনিটরিং করার জন্য করা গঠন হয়েছে একটি টিম। ওই টিমের সদস্যরা সার্বক্ষনিক বাজার তদারকি করছেন। প্রতিটি দোকানের সামনে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছারাও সার্বক্ষনিক রাজবাড়ীর চেম্বাস অব কমার্স এন্ড ইন্টাজট্রিজের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী এ বিষয়ে নজর রাখছেন।