Opu Hasnat

আজ ২২ মে মঙ্গলবার ২০১৮,

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা প্রশাসনের মাসিক সমন্বয় সভায় ভাইস চেয়ারম্যানের অশালীন আচরণ

যাত্রগানের আসর বন্ধ করার ক্ষমতা ওসির বাবার নেই : ভাইস চেয়ারম্যানের হুশিয়ারী সুনামগঞ্জ

যাত্রগানের আসর বন্ধ করার ক্ষমতা ওসির বাবার নেই : ভাইস চেয়ারম্যানের হুশিয়ারী

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বাথরুমের বরাদবদকৃত  ১ লাখ ৬৪ হাজার টাকা দিয়ে পুরোপুরি কাজ না করিয়ে টাকা আত্মসাধের বিষয় নিয়ে দূর্গাপূজা উপলক্ষে উপজেলা সমন্বয় কমিটির মাসিক সভায় বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা এই প্রকল্পের চেয়ারম্যান(পিআইসি)কে জানতে চাইলে ক্ষেপে উঠে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানের মোঃ সোলেমান তালুকদার। তিনি এ সময়  উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা মৎস্য অফিসার এবং বিশ্বম্বরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কে উদ্দেশ্যে করে বলেন আমি বিশ্বম্ভরপুর  সদরে ও ফতেপুর গ্রামে যাত্রাগানের আসর ও নাটকের আয়োজন করেছি  ওসি কেন ওসির বাবা ও যাত্রাপালা গানের আসর বন্ধ করতে পারবে না বলে হুংকার দেন তিনি।  

মঙ্গলবার সকালে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে দূর্গাপূজা উপলক্ষে উপজেলা সমন্বয় কমিটির মাসিক সভায় তিনি এমন অশালীন মন্তব্য করেন।  এক পর্যায়ে বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগন ও উপজেলা মৎস্য অফিসার  মোঃ ছমির উদ্দিন বাথরুমের বরাদবদকৃত টাকা  কাজ সমাপ্ত না করে টাকা উত্তোলনের মাধ্যমে টাকা আত্মসাধকারী এই প্রকল্পের পিআইসি কে জানতে চাইলে আবারো রাগান্বিত হয়ে সভায় ভাইস চেয়ারম্যান সোলেমান তালুকদার অশালীন (মারমুখী)আচরন করে বলেন,বাথরুমে কাজ হলে হবে না হলে নাই তাতে কারো বলার দরকার নেই বলে হুংকার দেন তিনি।  
    
এ ব্যপারে  ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুজ্জামান শাহ বলেন, থানার ওসিকে উপজেলা সমন্বয় কমিটির সভায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সোহেলমান তালুকদারের মারমুখি আচরণ আমাদেরকে মর্মাহত করেছে। এ ধরনের আচনের নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদেও জানা নেই। 

এ ব্যপারে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সোলেমান তালুকদার সমন্বয় সভায় অশালীন আচরনের বিষয়টি অস্বীকার করেন। 

এ ব্যাপারে বিশ্বম্ভরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ শহিদুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার বলেন, একজন সম্মানিত ভাইস চেয়ারম্যানের মুখ থেকে এমন অশালীন আচরণ খুবই দুঃখজনক। তিনি বলেন দূর্গাপূজা চলাকালীন এ ধরনের যাত্রা গানের পালা আইন শৃংখলার অবনতি হতে পারে। 

এ ব্যপারে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হারুন মিয়া বলেন, বাথরুমের অধিকাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বাকী রয়েছে কিছু কাজ। তিনি যাত্রাগানের বিষয়টি সর্ম্পকে বলেন আজ সমন্বয় সভায় এ বিষয়ে কোন আলোচনা হয়নি। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর