Opu Hasnat

আজ ১৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ২০২০,

করোনার বিরুদ্ধে লড়তে ৮ বিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠন আন্তর্জাতিক

করোনার বিরুদ্ধে লড়তে ৮ বিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠন

বিশ্বব্যাপী মহামারী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে ৮ বিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠন করতে রাজি হয়েছেন বিশ্ব নেতারা। 

সোমবার (৪ মে) ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) আয়োজিত ভার্চুয়াল সম্মেলনে বিশ্ব নেতারা করোনার টিকা ও চিকিৎসা পদ্ধতি আবিস্কার এবং অন্যান্য খরচ বাবদ ৮ বিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

ইইউ আয়োজিত এই ভার্চুয়াল সভায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া ব্যতীত অন্যান্য ৪০টি দেশের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা, বিভিন্ন সংস্থা ও সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন এবং করোনার বিরুদ্ধে লড়তে বিভিন্ন অঙ্কের অনুদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

সম্মেলনে ইইউ ও নরওয়ে ১ বিলিয়ন ডলার করে দেওয়ার ঘোষণা দেয়। জাপান ৮০০ মিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। ফ্রান্স, সৌদি আরব ও জার্মানি প্রত্যেকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার দেওয়ার কথা বলেছে। যুক্তরাজ্য দেবে ৪৮৩ মিলিয়ন।

সুইজারল্যান্ড ৩৮১ মিলিয়ন, নেদারল্যান্ডস ২৯০.৫ মিলিয়ন, অস্ট্রেলিয়া ২২৬ মিলিয়ন, ইতালি ১৫২.৭ মিলিয়ন, দক্ষিণ কোরিয়া ৫০ মিলিয়ন ও কুয়েত ৪০ মিলিয়ন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকা ১.৩ মিলিয়ন এবং আফ্রিকা ইউনিয়নের সদস্য দেশগুলো ৬১ মিলিয়ন, ইসরায়েল ৬০ মিলিয়ন, আয়ারল্যান্ড ২০ মিলিয়ন, লুক্সেমবার্গ ৫.৪৫ মিলিয়ন, সুইডেন ১৭ মিলিয়ন, পর্তুগাল ১০.৯ মিলিয়ন, ফিনল্যান্ড ৩৯.৩ মিলিয়ন, স্লোভেনিয়া ৩৩.৬ মিলিয়ন ডলার দিতে রাজি হয়েছে।

এদিকে বিল গেটসের স্ত্রী—বিল অ্যান্ড মেলিন্দা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ১০০ মিলিয়ন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। ১ মিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন গায়িকা ম্যাডোনা।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন জানিয়েছে, এই ৮ বিলিয়ন ডলারের মধ্য থেকে ৪.৪ বিলিয়ন খরচ হবে করোনার টিকা আবিস্কারের লক্ষ্যে। অর্থাৎ টিকা আবিস্কার, উন্নয়ন ও গবষণায়। ২ বিলিয়ন খরচ হবে টিকার বাইরে আর কোন কোন উপায়ে করোনাভাইরাসের চিকিৎসা করা যায় সে লক্ষ্যে। বাকি ১.৬ বিলিয়ন ডলার খরচ হবে নানান পরীক্ষা-নিরীক্ষার পেছনে।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ইইউ কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন দের লেয়েন। তথ্য : বিবিসি ও সিএনএন