Opu Hasnat

আজ ৪ জুলাই শনিবার ২০২০,

দীঘিনালায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফ’র এক নেতাসহ নিহত ২ খাগড়াছড়ি

দীঘিনালায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফ’র এক নেতাসহ নিহত ২

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার দীঘিনালা উপজেলার বানছড়ি প্রেসবাজারে প্রতিপক্ষের ব্রাশ ফায়ারে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসিত গ্রুপের এক শীর্ষ পর্যায়ের নেতা ও এক গ্রামবাসী নিহত হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দীঘিনালা উপজেলার বানছড়া প্রেস বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সদিব্য কুমার চাকমা ওরফে বাঙ্গাল (২৫) ও এনজেল চাকমা ওরফে বাবু ওরফে রিঝাং চাকমা (৩০)। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। নিরাপত্তা বাহিনী টহল জোরদার করা হয়েছে।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসিত গ্রুপের জেলা সংগঠক অংগ্য মারমা এ ঘটনার জন্য জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা/সংস্কার) গ্রুপের সন্ত্রাসীদের দায়ী করেছেন। 

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের সংগঠক ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সভাপতি অংগ্য মারমা এক বিবৃতিতে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় সন্ত্রাসীদের হামলায় একজন ইউপিডিএফ সদস্য ও অন্য একজন সাধারণ গ্রামবাসী নিহত হওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। ইউপিডিএফ নেতা উক্ত হামলাকে কাপুরুষোচিত, ন্যাক্কারজনক ও একটি জঘন্যতম অপরাধ বলে মন্তব্য করে দায়ি সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান। 

তিনি বলেন, সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক ইউপিডিএফ সদস্য ছাড়াও টমটম চালক গ্রামবাসী মারা গেছেন। এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

নিরাপত্তা বাহিনী সুত্রে জানা যায়, খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলার বানছড়ি সেবাজারে প্রতিপক্ষের গুলিতে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসিত গ্রুপের এক সদস্যসহ দু’জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসী হামলায় এক ইউপিডিএফ (প্রসিত) সদস্যসহ দুইজন নিহত হয়েছে।  ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বাবু চাকমা ও সুদীব্য কান্তি চাকমা নামে ওই গ্রামের এক বাসিন্দা নিহত হন। দীঘিনালা উপজেলা ইন্দ্রমণি পাড়ার বাসিন্দা বাবু চাকমার পিতার নাম সুশীল ভূষণ চাকমা ও সুদীব্য কান্তি চাকমার পিতার নাম বীরেন্দ্র মোহন চাকমা। 

স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান, সকালে দিলিপ কুমার চাকমার বাড়ির সামনে বসে কয়েকজন বসে দাবা খেলছিল। এ সময় একদল অস্ত্রধারী বাজারে ঢুকে এলোপাথারি গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে দুইজনের মৃত্যু হয়। 

এ ব্যপারে পাহাড়ে আঞ্চলিক সংগঠনগুলো ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপরে গণমাধ্যম প্রধান নিরণ চাকমা এ হত্যাকান্ডে প্রতিপক্ষকে দায়ী করলেও কোন প্রতিপক্ষ সেটা পরিস্কার করেননি।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্য দু‘জনের লাশ উদ্বার করেছে। লাশ খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদও হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

খাগড়াছড়ি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম সালাহ উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা মধ্য বানছড়া গ্রমে গিয়ে অতর্কিত ব্রাশ ফায়ার করলে ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বাবু চাকমা ওরফে রিঝাং (৩০) ও সুদীব্য কান্তি চাকমা বাঙাল্লা (২৫) নামে ওই গ্রামের এক বাসিন্দা নিহত হন। এরমধ্যে বাঙাল্লা চাকমা অটো রিকশাচালক এবং বাবুল চাকমা ইউপিডিএফ সদস্য। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর