Opu Hasnat

আজ ২৮ মে বৃহস্পতিবার ২০২০,

সুনামগঞ্জে কাফনার গন্ধে জনজীবন অতিষ্ঠ! নানাবিধ রোগে ভুগছেন অনেকেই সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে কাফনার গন্ধে জনজীবন অতিষ্ঠ! নানাবিধ রোগে ভুগছেন অনেকেই

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের কাদিপুর গ্রামে ও মাঠে কাফনার গন্ধে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে নানারোগে আক্রান্ত হচ্ছে স্থানীয় লোকজন। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও সরেজমিনে কাদিপুর গ্রামের পশ্চিম পাশে রাস্তা সংলগ্ন মহাসিং নদীর পাড়ে বিগত ৭ বছর যাবৎ নদী থেকে মাঘ মাস থেকে কাফনা সংগ্রহ করে বড় বড় স্তুপ দিয়ে রাখেন একই গ্রামের আমিন উদ্দিনের ছেলে প্রভাবশালী জুবায়ের আহমদ জাবির। প্রত্যক্ষদর্শী ও একই গ্রামের ভোক্তভোগী জাহাঙ্গীর আলম, ছালেক নুর, সাইবুল আলম, সাবিজনুর আব্দুল কাদির জানান, বিগত ৭ বছর যাবৎ জাবির নদী থেকে টনের টন কাফনা সংগ্রহ করে ঢাকা পার্সেল করে তারা লাখ লাখ টাকা মোনাফা লাভ করতে নদীর পাড়ে ও মানুষের বসতবাড়ীর কাছে বড় বড় টিলা আকারে কাফনা মজুদ করে যাচ্ছেন। ফলে এই কাফনা মজুদ রাখার কারণে এগুলো পঁচে এলাকায়  দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় পার্শবর্তী অধূশতাধিক পরিবারের শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ লোকেরা প্রতিনিয়ত শ্বাসকষ্ট  জনিত রোগসহ ইতিমধ্যে নানান ধরনের রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। 

এছাড়া এই রাস্তা দিয়ে কাদিপুর, আসামপুর ও ইসলামপুর এবং পাগলা গ্রামের লোকজন ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের চলাচল করে থাকেন। এই দুর্গন্ধের কারণে অনেক শিক্ষার্থী ও পথচারীরা রোগে ভোগছেন প্রতিনিয়ত। ভোক্তভোগীরা আরও জানান রাতের বেলায় এই র্দূগন্ধ আরও বেশি পরিমাণে ছড়িয়ে পড়ার কারণে শিশুরা সকাল বিকাল বেলা পড়ালেখায় বসতে চায়না। এছাড়া এই ব্যাপারে ভোক্তভোগীরা জাবিরকে বারবার বলার পরও সে প্রভাবশালী হওয়ায় সাধারণ মানুষের কথায় কোন তোয়াক্কা করেনা বলেও জানান তারা। বর্তমানে এই ধরণের বেহাল দুদর্শা থেকে মুক্তি পেতে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাহায্য চান কাদিপুর গ্রামের ভোক্তভোগী অসহায় হতদরিদ্র দিনমজুর শ্রেণীর সাধারণ জনসাধারণ।  

এ ব্যাপারে জুবায়ের আহমদ জাবিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দু-একদিনের মধ্যে এগুলো সরিয়ে ফেলা হবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর