Opu Hasnat

আজ ১ এপ্রিল বুধবার ২০২০,

সৈয়দপুরে ১১ বাড়ির বাসিন্দারা হোম কোয়ারেন্টিনে নীলফামারী

সৈয়দপুরে ১১ বাড়ির বাসিন্দারা হোম কোয়ারেন্টিনে

প্রাণঘাতী ভাইরাস নভেল করোনা নিয়ে সৈয়দপুর উপজেলায় বাসায় বাসায় আজ তীব্র আত্কং সৃষ্টি হয়েছে। বাসায় আসায় নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের বাঁশবাড়িতে ১১টি বাড়ির বাসিন্দাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) ওই নির্দেশনা জারি করেন সৈয়দপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার।

এলাকাবাসী জানায়, ওই এলাকার নাসিম খানের ছেলে ইমরান (৩৫) ঢাকা থেকে সপ্তাহ খানেক আগে গায়ে প্রচন্ড জ্বর, সর্দি, কাশি নিয়ে বাড়িতে আসেন। শরীর প্রচন্ড খারাপ হলে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

পৌরসভার কাউন্সিলর আবিদ হোসেন লাড্ডান জানান, সিভিল সার্জন ডা. রনজিত কুমার বর্মনের পরামর্শে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে সৈয়দপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার থানা পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং ওই বাড়ির আশেপাশের ১১টি বাড়ির বাসিন্দাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কড়া নির্দেশ প্রদান করেন। এসময় পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ জিয়াউল হক জিয়া, স্থানীয় ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদ হোসেন লাড্ডান, মহিলা কাউন্সিলর জোসনা বেগম, সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আতাউর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার বলেন, সকলের প্রতি বিনীত অনুরোধ, আপনারা যারা বিদেশ ফেরত বা করোনার ভাইরাস বহন করছেন তারা দয়া করে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলুন। আপনার কারণে পুরো দেশ ক্ষতিগ্রস্থ হোক এটা নিশ্চয়ই আপনি চান না। অন্যথায় আইন প্রয়োগ করতে আমরা বাধ্য হব।

সৈয়দপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ জিয়াউল হক জিয়া বলেন, এলাকাবাসীর প্রতি আহবান জানানো হচ্ছে যে বাড়িগুলো হোম কোয়ারেন্টিন করা হলো সেসব বাড়ী কেউ যাতায়াত করবেন না।এবং তাদেরকেও বাইরে আসতে দিবেন না। এ নির্দেশ অমান্য করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। কারণ আপনারা সচেতন ও সতর্ক না হলে নিজেরা যেমন আক্রান্ত হবেন তেমনি পুরো পৌরবাসীর জন্য চরম হুমকি ডেকে আনবেন। যা কোন ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না ।