Opu Hasnat

আজ ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ২০২০,

মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া রাজনীতিআইন ও আদালত

মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া

অবশেষে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া। বয়স বিবেচনায় ও মানবিক কারনে সরকার সদয় হয়ে দন্ডাদেশ ছয়মাস স্থগিত রেখে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন খালেদা জিয়। মুক্তির আদেশ পেলেই তাকে কারাগার থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

তবে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল পর্যন্ত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কারাগারে মুক্তির কোনো আদেশের কপি আসেনি বলে জানিয়েছেন কারা কর্তৃপক্ষ।

কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুর ইসলাম বলেন, ‘খালেদা জিয়ার যে মামলার সাজা হয়েছে, তার দণ্ড মওকুফ করা হয়েছে। তবে তার বিরুদ্ধে আরও একাধিক মামলা আছে। সবকিছুই বিবেচনা করে আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দিকে তাকিয়ে আছি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কপি আসলে আমরা খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে প্রক্রিয়া শুরু করব।’

এর আগে এক সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শর্তসাপেক্ষে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। একই সঙ্গে তিনি জানান, এসময়ের মধ্যে খালেদা জিয়া নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা নিতে পারবেন। তবে বিদেশ যেতে পারবেন না।

তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আমার কাছে একটা দরখাস্ত করেছিলেন খালেদা জিয়াকে নির্বাহী আদেশে মুক্তি দেওয়ার জন্য। সেখানে বলেছেন লন্ডনে উন্নত চিকিৎসার জন্য। এরপর খালেদা জিয়ার ভাই শামীম এস্কান্দার, তার বোন সেলিমা ইসলাম, তার বোনের স্বামী রফিকুল ইসলাম প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একই বিষয়ে সাক্ষাৎ করেছিলেন। 

‘সেখানেও এই আবেদনের ব্যাপারে কথা বলেছেন তারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আইনি প্রক্রিয়ায় আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারায়  খালেদা জিয়ার সাজা ছয় মাসের জন্য স্থগিত রেখে তাকে ঢাকাস্থ নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসাগ্রহণ করার শর্তে এবং উক্ত সময়ে তিনি দেশের বাইরের গমন না করার শর্তে মুক্তি দেওয়ার জন্য আমি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মতামত কিছুক্ষণ আগে পাঠিয়েছি।’

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলেই খালেদা মুক্তি পাবেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে বিদেশে পাঠানো মানে তাকে (খালেদা জিয়া) ‘সুইসাইডের’ মুখে ফেলা।

প্রসঙ্গত, জিয়া চ্যারিটেবল ও আরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। গ্রেপ্তারের পর তাকে কারাগারে নেওয়া হয়। তবে কারাগারে অসুস্থ থাকায় চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক‌্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজন সেলে রাখা হয় তাকে।