Opu Hasnat

আজ ২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ২০২০,

মুন্সীগঞ্জে টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের কৃষি সংবাদমুন্সিগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জে টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের

মুন্সীগঞ্জে চলতি মৌসুমে আলু চাষের পাশাপাশি কৃষকরা টমেটো চাষের দিকেও ঝুঁকছেন। আলু আবাদে লোকসানের আশঙ্কা এবং টমেটো লাভজনক হওয়ায় এ এলাকার কৃষকরা টমেটো চাষ করছেন। গত মৌসুমে উৎপাদিত টমেটো বিক্রি করেও লাভবান হয়েছেন তারা। চলতি মৌসুমে তারা সোনালি জাতের টমেটো চাষ করেছেন, তাও আবার ফরমালিনমুক্ত। কৃষক ও কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জে জেলার ৬টি উপজেলার বিভিন্ন উঁচু জমিতে টমেটো চাষ করেছেন কৃষকরা। জমিতে বাঁশের খুঁটি, সুতলি, কটসুতা ব্যবহারের মাধ্যমে আধুনিক পদ্ধতিতে টমেটো চাষ করেছেন তারা। এভাবে চাষ করলে আর্থিক খরচ কিছু বেশি হলেও উৎপাদন হয় আশানুরূপ। ফলে উৎপাদন খরচের চেয়ে দ্বিগুণ লাভবান হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কৃষক। তাই আলু আবাদের পাশাপাশি মুন্সীগঞ্জের কৃষকরা টমেটো চাষের দিকেও ঝুঁকছেন। গত মৌসুমে চাষ করা টমেটো বিক্রিযোগ্য হওয়ার পর মুন্সীগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ীরা জমিতে গিয়ে পাইকারি দরে টমেটো কেনেন। এবারও পাইকারি ব্যবসায়ীরা আগে থেকেই কৃষকের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন। এর মধ্যে সদরের মহাকালী ইউনিয়নের সাতানিখিল, চরকেওয়ার ইউনিয়নের গজারিয়াকান্দি, গুহেরকান্দি গ্রাম, টঙ্গিবাড়ী উপজেলার ধামারণ গ্রামসহ জেলার ৬টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় টমেটো চাষ করছেন কৃষক।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত বছর জেলায় ১৫৫ হেক্টর জমিতে টমেটো আবাদ করা হয়েছিল। চলতি বছর তা বৃদ্ধি পেয়ে ২২০ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা আল মামুন জানান, টমেটো পাকানোর জন্য মুন্সীগঞ্জে কোনো ধরনের কেমিক্যাল বা ফরমালিন ব্যবহার করা হয় না। আলুর চেয়ে বেশি লাভ হওয়ায় জেলার কৃষকরা এখন টমেটো চাষের দিকে ঝুঁকছেন। তিনি আরও জানান, টমেটো ছাড়াও বিভিন্ন সবজি আবাদও করছেন কৃষক।