Opu Hasnat

আজ ৪ এপ্রিল শনিবার ২০২০,

অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায় আর নেই বিনোদন

অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায় আর নেই

অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায় আর নেই। বুধবার (১১ মার্চ) সন্ধ্যায় তিনি মৃত্যুবরন করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। তাঁর দুই কন্যার এক জন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। আর এক কন্যার নাম অজপা মুখোপাধ্যায়। বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন সন্তু। 

বড়পর্দার পাশাপাশি ছোটপর্দাতেও দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে গিয়েছেন সন্তু। তাঁর মৃত্যুতে টালিগঞ্জের শিল্পীমহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

১৯৫১ সালের ১৭ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেছিলেন সন্তু মুখোপাধ্যায়। তপন সিংহের ‘রাজা’ ছবি দিয়ে তাঁর বড়পর্দায় অভিনয়ের শুরু। এর পর একে একে তরুণ মজুমদার, হরনাথ চক্রবর্তী প্রমুখ পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। ‘হারমোনিয়াম’, ‘সংসার সীমান্তে’, ‘গণদেবতা’-সহ অজস্র ছবিতে তাঁর অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন দর্শককুল। অভিনয়ের পাশাপাশি চমৎকার গানও গাইতেন সন্তু।

বুধবার রাতেই এই অভিনেতার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে। এ দিন রাত এগারোটার দিকে অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায়ের দেহ শেষকৃত্যের জন্য বাড়ি থেকে বার করা হয়। তাঁর দুই মেয়ে ছাড়াও, সঙ্গে ছিলেন পরিচালক হরনাথ চক্রবর্তী, সুমন মুখোপাধ্যায়, অর্জুন দত্ত, অভিনেতা শুভাশিস মুখোপাধ্যায়-সহ অনেকে। ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসও।

অভিনেত্রী মাধবী মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমি অত্যন্ত মর্মাহত। সন্তুর সঙ্গে আমার দীর্ঘকালের পরিচয়। একসঙ্গে অনেক ছবি করেছি। যেমন ‘গণদেবতা’, পূর্ণেন্দু পত্রীর ‘মালঞ্চ’। পরের দিকে আমরা ‘কুসুমদোলা’, ‘ইষ্টিকুটুম’ ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছি। ‘কুসুমদোলা’য় অভিনয়ের সময় ওঁর স্ত্রী মারা যান। ও ভীষণ ভেঙে পড়ে। এই শোকের তো কোনও সান্ত্বনা হয় না। তবু ওকে সান্ত্বনা দিতাম। থুব আড্ডাবাজ মানুষ ছিল সন্তু। মাঝখানে হঠাৎই শুনলাম ও অসুস্থ। শুটিং করছে না। ভেবেছিলাম দিন দুয়েক বাদে ওর বাড়ি যাব। কিন্তু যাকে নিয়ে যাব, সে অসুস্থ। সন্তুকে দেখতে আমার আর যাওয়া হল না।’’

সন্তু মুখোপাধ্যায়ের নানা স্মৃতির কথা তুলে ধরেছেন অভিনেতা শুভাশিস মুখোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, ‘‘ওঁর সঙ্গে ৪০ বছরের সম্পর্ক। উনি একটি নাটকে মঞ্চে গেয়েছিলেন ‘আলোকের এই ঝর্ণাধারায়’ গানটি গেয়েছিলেন। সেই দিনটির কথা আজ মনে পড়ে যাচ্ছে। চলচ্চিত্র ও মঞ্চে তাঁর অসাধারণ কণ্ঠ এখনও কানে বাজে। যাত্রায় যোগ দেওয়ার পর মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন।’’

প্রযোজক, লেখক ও চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমাদের প্রযোজনায় ‘মোহর’ ধারাবাহিকেই শেষ কাজ করেন সন্তুদা। জানুয়ারি মাসেও তিনি শুটিং করেছেন। অত্যন্ত শক্তিশালী অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায়। তাঁর কোনও বিকল্প নেই। আমাদের গোড়ার দিক থেকেই তিনি অভিনয় করেছেন। অভিনয়ের খুব খিদে ছিল। ভাল চরিত্র পেলে উনি একদম নড়েচড়ে বসতেন।’’

সম্প্রতি পরিচালক অর্জুন দত্তের সিনেমা ‘শ্রীমতী’র শুটিংয়ে ব্যস্ত অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এ দিন শুটিং সেরে বাড়ি ফেরার পর তিনি ইউনিটকে জানিয়ে দেন, বৃহস্পতিবার শুটিংয়ে যেতে পারবেন না। অর্জুন বলছেন, ‘‘অনেক দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন সন্তু মুখোপাধ্যায়। বাবা অসুস্থ। তার মধ্যেও অসম্ভব মনের জোর নিয়ে শুটিং করছিল স্বস্তিকাদি। এটা ও বলেই সম্ভব।’’ আনন্দবাজার