Opu Hasnat

আজ ২৯ মার্চ রবিবার ২০২০,

দুর্গাপুরে বিদ্যালয় ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ নেত্রকোনা

দুর্গাপুরে বিদ্যালয় ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার বিরিশিরি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার ওই গ্রামের বাসিন্দারা সাংবাদিকদের জানান, প্রয়োজনীয় তদারকির অভাবেই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের সামগ্রি দিয়ে ছাদ ঢালাইসহ অন্যান্য কাজ করছেন। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, বিরিশিরি ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামে বিরিশিরি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়টি’র নির্মানাধীন ৪তলা বিশিষ্ট ভবনের দ্বিতীয় তলা নির্মাণের কাজ চলছে। শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বেশি থাকায় ভৌত-অবকাঠামো সমস্যার জন্যে নানা সমস্যা পোহাতে হচ্ছে। পড়া লেখার তেমন কোন ঘর না থাকায় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের ফ্যাসিলিটিজ বিভাগের আওতায় উক্ত বিদ্যালয়ের ৩ তলা ভবন নির্মাণের জন্য ১ কোটি ৪৭ লক্ষ ৯১ হাজার ৫শ ৮০ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। টেন্ডারের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের মেসার্স নজরুল ওয়ার্কশপ এন্ড স্টিল ফার্নিচার নামে এক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ওই নির্মাণের কাজ পায়। অধিক লাভের আশায় ডিজাইন অনুযায়ী কাজ না করে অর্থ আত্মসাতের পায়তারা চালাচ্ছে ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। 

স্থানীয়রা জানায়, বিদ্যালয়ের ২ তলা ভবনের ছাদ ঢালাই ও ভবন নির্মাণ কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে ময়লাযুক্ত নিম্নমানের বালু, ৩ নম্বর ইটের সুরকী ও কমদামের নামমাত্র সিমেন্ট। 

স্কুল ম্যানেজিং কমিটি ও প্রকৌশল বিভাগের কোন লোকের উপস্থিতি না থাকার সময়ই ভবনের ছাদ ঢালাই এর কাজ করে থাকে ওই প্রতিষ্ঠান। এলাকাবাসী স্কুলে নিম্নমানের কাজ হচ্ছে মর্মে স্কুল সভাপতি, ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউএনও ফারজানা খানমকে অবগত করলে, বিষয়টি তাঁরা সরেজমিনে পরিদর্শন করে বেশকিছু অনিয়মের চিত্র দেখতে পেয়ে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ইতোমধ্যে ভবন নির্মাণের ইষ্টিমিট হাতে পেয়েছি। ঠিকাদার তাঁর পছন্দ মতো কাজ করছেন, আমাদের কোন কথাই শুনছে না। বিরিশিরি ইউপি চেয়ারম্যান ও এসএমসি সভাপতি রফিকুল ইসলাম রুহু বলেন, নির্মাণ কাজের অনিয়মের বিষয়ে অনেকেই আমাকে অভিযোগ করেছেন। নিম্নমানের সামগ্রি দিয়ে ভবন নির্মাণের কাজ করায় অল্প দিনেই তা ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে পড়বে। সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।